পাবনায় ইলিশ ধরায় ১৪ জেলে গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ২০১৮-১০-১২ ৭:০৯:০২ পিএম
শাহীন রহমান | রাইজিংবিডি.কম

পাবনা প্রতিনিধি : মা ইলিশ মাছ রক্ষায় সরকার ঘোষিত নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে পাবনার সুজানগর ও আমিনপুরে পদ্মা নদীতে ইলিশ মাছ ধরায় ১৪ জেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে জাল, ইলিশ মাছ জব্দ করেছে পুলিশ ও উপজেলা মৎস্য বিভাগ।

গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা ও তিন জনকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা দেওয়া হয়েছে।

সুজানগর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ফরহাদ হোসেন জানান, গত ৭ হতে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত ২২ দিন দেশব্যাপী ইলিশ আহরণ, পরিবহন, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয়, মজুদ ও বিনিময় নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

সেই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ মাছ শিকার করায় সুজানগরের নাজিরগঞ্জ ও সাতবাড়িয়া এবং আমিনপুরের সাগরকান্দি এলাকার পদ্মা নদীতে অভিযান চালিয়ে ১৪ জেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সেইসঙ্গে প্রায় ৪০ হাজার মিটার জাল ও ২৫ কেজি ইলিশ মাছ জব্দ করা হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- সুজানগর উপজেলার দূর্গাপুর গ্রামের নুরনবী মন্ডলের ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (২০), ইন্দ্রজিতপুর গ্রামের মৃত আফতাব প্রামাণিকের ছেলে বেলাল হোসেন (৩০), আব্দুর রশিদ প্রামাণিকের ছেলে রতন প্রামাণিক (৩৫), নারুহাটি গ্রামের মন্টু শেখের ছেলে আব্দুল হাই (২০), আব্দুস সামাদের ছেলে শাহাদত ইসলাম (২৫), রাজবাড়ী জেলার বিজয়নগর গ্রামের কিসমত মোল্লার ছেলে আমজাদ মোল্লা (৩৭), আমিনপুরের চর খলিলপুর গ্রামের ময়েজ শেখের ছেলে সিদ্দিক শেখ (২৬), খালেক বিশ্বাসের ছেলে সুজন বিশ্বাস (৩২), বারভাগিয়া গ্রামের সাত্তার শেখের ছেলে আরিফ শেখ (২৬), বুলচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত শুকুর আলী শেখের ছেলে হেলাল শেখ (৩৯) ও ঈমান আলী শেখের ছেলে জলিল শেখ (৪৭)। এদের বিরুদ্ধে সুজানগর ও আমিনপুর থানায় মৎস্য আইনে নিয়মিত মামলা দায়ের হয়েছে।

সুজানগর উপজেলার চরভবানীপুর গ্রামের হাশেম শেখের ছেলে সাইদুল শেখ (৩০), মৃত হাচেন শেখের ছেলে মাবুদ শেখ (৩৫) ও হাশেম শেখের ছেলে আজাদ শেখ (১৭) কে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা দেওয়া হয়েছে। 

ভোলায় ৪১ জেলের জেল-জরিমানা
ভোলা সংবাদদাতা
জানিয়েছেন, ভোলার চার উপজেলার মেঘনা ও তেতুঁলিয়া নদীতে ইলিশ শিকার করায় ৪১ জেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ সময় তাদের থেকে ৫০ কেজি ইলিশ ও ১০ হাজার মিটার জাল জব্দ করা হয়। 

পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৩৭ জনকে এক বছর করে করাদণ্ড ও চার জনকে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

ভোলা সদর উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান জানান, ভোররাত থেকে দুপুর পর্যন্ত মৎস্য বিভাগ, কোস্টগার্ড ও নৌপুলিশ সদস্যরা পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে ভোলা সদর উপজেলা থেকে ২২ জন, বোরহানউদ্দিন উপজেলা থেকে তিন জন, দৌলতখান উপজেলা থেকে ১১ জন ও লালমোহন উপজেলা থেকে পাঁচ জন জেলেকে গ্রেপ্তার করে। 

তিনি জানান, পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ৩৭ জেলেকে এক বছর করে কারাদণ্ড ও বাকি চার জনের বয়স কম হওয়ায় প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

জব্দকৃত জাল আগুনে পুড়িয়ে নষ্ট করা হয়েছে। জব্দকৃত মাছ দুস্থদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে। 
 


রাইজিংবিডি/পাবনা/১২ অক্টোবর ২০১৮/শাহীন রহমান/বকুল

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

পুরুষের মেনোপজ : যা জানা জরুরি

২০১৮-১০-১৭ ৯:০৩:৫৩ পিএম

সুজি দিয়ে তালের বড়া

২০১৮-১০-১৭ ৮:৫১:১৮ পিএম

মনোবিদের ক্লাসে ক্রিকেটাররা…

২০১৮-১০-১৭ ৮:৩৫:৫৩ পিএম