নিউজিল্যান্ডে হত্যা: স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে মারা গেলেন স্ত্রী

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১৫ ১০:১১:২৭ পিএম
আব্দুল্লাহ আল নোমান | রাইজিংবিডি.কম

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেট : নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত তিন বাংলাদেশির একজন সিলেটের হোসনে আরা ফরিদ (৪২)। গুলির শব্দ শুনে ‘প্যারালাইজড আক্রান্ত স্বামীকে বাঁচাতে’ গিয়ে তিনি নিহত হলেও বেঁচে গেছেন স্বামী ফরিদ উদ্দিন আহমদ।

তার মৃত্যুর খবরে গ্রামের বাড়িতে চলছে মাতম।

নিহত হোসনে আরা ফরিদ সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার লক্ষ্মীপাশা ইউনিয়নের জাঙ্গালহাটা গ্রামের মৃত আবদুন নূরের মেয়ে। আর তার স্বামী ফরিদ উদ্দিনের বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার চকগ্রামে। তাদের এক কন্যা সন্তান রয়েছে।

১৯৯৪ সালে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের কয়েক বছর পর তারা নিউজিল্যান্ডে চলে যান। ২০০৯ সালে সর্বশেষ তারা বাংলাদেশে বেড়াতে এসেছিলেন বলে পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।

নিউজিল্যান্ডে বসবাসকারী স্বজনদের বরাতে মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হোসনে আরার বড় বোন রওশন আরা বেগম।

রওশন আরা বেগম বলেন, ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় মসজিদের একাংশে নারীরা ও অন্য অংশে পুরুষরা নামাজ আদায় করেন। ঘটনার প্রায় আধঘণ্টা আগে প্যারালাইসড আক্রান্ত স্বামীকে হুইল চেয়ারে করে মসজিদে নিয়ে যান হোসনে আরা। স্বামীকে পুরুষদের নামাজের অংশে রেখে তিনি মহিলাদের অংশে চলে যান। কিছুক্ষণ পর গুলির শব্দ শুনে স্বামীকে বাঁচানোর জন্য বের হন। এ সময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হোসনে আরাকে গুলি করলে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান।

তবে এর আগে অন্য মুসল্লিরা স্বামী ফরিদ উদ্দিনকে মসজিদ থেকে বের করে নেওয়ায় তিনি বেঁচে গেছেন। বর্তমানে ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে তাদের বাসায় রয়েছেন।

নিউজিল্যান্ডে বসবাসকারী নিহত হোসনে আরার ভাবি ফাতেমা বেগমের বরাত দিয়ে তার ভাগ্নে মাহফুজ চৌধুরী বলেন, মসজিদের বাইরে গুলির শব্দ শোনার সঙ্গে সঙ্গে কয়েকজন মুসল্লি হুইল চেয়ারে করে ফরিদ উদ্দিনকে বের করে নেওয়ায় তিনি বেঁচে গেছেন। ফরিদ উদ্দিন ও হোসনে আরা ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় বসবাস করতেন। 

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম ফজলুল হক শিবলি জানান, খবর পেয়ে তারা হোসনে আরার গ্রামের বাড়ি জাঙ্গালহাটা পরিদর্শন করেছেন এবং নিহতের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেছেন।



নিউজিল্যান্ডে দূতাবাসের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমান ভুইয়া হামলায় তিন বাংলাদেশি নিহতের কথা নিশ্চিত করেন। তিনি এদের মধ্যে দুই জনের পরিচয় সম্পর্কে জানাতে পারলেও হোসনে আরার বিষয়ে জানাতে পারেননি।

ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে বন্দুকধারীর হামলায় অন্তত ৪৯ জন নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শফিকুর রহমান ভুইয়া জানান, আরেক জনের মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করা সম্ভব হয়েছে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ড. আবদুস সামাদের স্ত্রী, যাকে এর আগে নিখোঁজ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছিল।

তিনি বলেন, নিহতদের একজন ড. আবদুস সামাদ, যিনি স্থানীয় লিংকন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। ড. সামাদ এর আগে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। নিহত অন্যজনের পরিচয় সম্পর্কে তিনি বলেন, মিসেস হোসনে আরা ফরিদ একজন গৃহবধূ ছিলেন।

আরো পড়ুন : নিউজিল্যান্ডে হত্যাযজ্ঞ: প্রিয় শিক্ষক হারিয়ে ছাত্রদের শোক
                 নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলায় ৩ বাংলাদেশি নিহত

                নিউজিল্যান্ডে হামলা: প্রত্যক্ষদর্শী যা বললেন


রাইজিংবিডি/সিলেট/১৫ মার্চ ২০১৯/আব্দুল্লাহ আল নোমান/বকুল

   
 


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

টিভিতে আজকের খেলা

২০১৯-০৩-১৯ ৮:৫৬:৪৯ এএম

শনিবার ডাকসুর প্রথম সভা

২০১৯-০৩-১৯ ৮:৪৮:৫৬ এএম

‘সন্তানই আমার সবকিছু হবে’

২০১৯-০৩-১৯ ৮:৪২:৫৬ এএম

শাইনপুকুর থেকে আবাহনীতে সৌম্য

২০১৯-০৩-১৯ ১২:১৪:০৭ এএম

দুই সপ্তাহ মাঠের বাইরে সুয়ারেজ

২০১৯-০৩-১৮ ১০:২৫:১৯ পিএম

দুদক: বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা মতবিনিময়

২০১৯-০৩-১৮ ১০:১৩:৩৩ পিএম

মেসির কোনো সীমানা নেই

২০১৯-০৩-১৮ ৮:৫৯:১০ পিএম