এডিপির বরাদ্দ কমল ৬৪৯০ কোটি টাকা

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০৬ ৪:৫৮:১১ পিএম
হাসিবুল ইসলাম | রাইজিংবিডি.কম

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১ লাখ ৫৭ হাজার ৫৯৪ কোটি ৩৯ লাখ টাকার সংশোধিত বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ (এনইসি)। এক্ষেত্রে মূল এডিপি থেকে কমে গেছে ৬ হাজার ৪৯০ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরের শুরুতেই এডিপির আকার ছিল ১ লাখ ৬৪ হাজার ৮৪ কোটি ৮৩ লাখ টাকা।

এ অর্থবছর সরকারি তহবিলের অর্থ না কমলেও বৈদেশিক সহায়তা এবং স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব অর্থায়ন থেকে বরাদ্দ কমেছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও এনইসি চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের বিস্তারিত ব্রিফ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এ সময় পরিকল্পনা সচিব মো. জিয়াউল ইসলাম, সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য ড. শামসুল আলম, আইএমইডি সচিব মো. মফিজুল ইসলামসহ পরিকল্পনা কমিশনের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, সংশোধিত এডিপিতে সরকারের নিজস্ব তহবিলের (জিওবি) অপরিবর্তিত বরাদ্দ রয়েছে ৯৬ হাজার ৩৩১ কোটি টাকা। বৈদেশিক সহায়তার বরাদ্দ ৫২ হাজার ৫০ কোটি টাকা। এক্ষেত্রে মূল বরাদ্দ ৫৭ হাজার কোটি টাকা থেকে কমেছে ৪ হাজার ৯৫০ কোটি টাকা।

স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৯ হাজার ২১৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা। এক্ষেত্রে মূল বরাদ্দ ১০ হাজার ৭৫৩ কোটি ৫৮ লাখ টাকা থেকে বাদ গেছে ১ হাজার ৫৪০ কোটি ১৯ লাখ টাকা।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘চলতি অর্থবছরে সংশোধিত এডিপির বাস্তবায়ন অনেক বাড়বে। কেননা আবহাওয়া ও আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো। বাংলাদেশে রপ্তানি এবং রেমিট্যান্সসহ অর্থনীতির অন্যান্য খাতগুলো ভালো করছে। এ ছাড়া মাথাপিছু আয় এবং জিডিপি প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পাবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘হলি আর্টিজান হামলার কারণে অনেকটা সময় প্রকল্প বাস্তবায়ন বাধাগ্রস্ত হয়েছে। তাই বৈদেশিক সহায়তা থেকে সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা বাদ দিতে হয়েছে।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আগামীতে যদি কোনো মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত অর্থের প্রয়োজন হয় তাহলে সেটি আমি বিবেচনা করে বরাদ্দ দেব। এই দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী আমাকে দিয়েছেন।’

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, প্রকল্প যাতে ঘনঘন সংশোধন করা না হয় সেদিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ছাড়া প্রকল্প বাস্তবায়নের মান যাতে নিশ্চিত হয় সেটি খেয়াল রাখতে হবে। প্রকল্পের বাস্তবায়ন তদারকি যাতে নিবিড় হয় সেজন্যও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।’

জানানো হয়, সংশোধিত এডিপিতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে পরিবহন খাতে ৩৭ হাজার ৫১৩ কোটি টাকা। এ ছাড়া বিদ্যুৎ খাতে দেওয়া হয়েছে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ ২২ হাজার ৪১০ কোটি টাকা এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ পাচ্ছে পল্লি উন্নয়ন ও পল্লি প্রতিষ্ঠান খাতে ১৬ হাজার ৭৯৩ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। সংশোধিত এডিপিতে অন্যান্য কয়েকটি খাতের বরাদ্দ হচ্ছে- ভৌত পরিকল্পনা, পানি সরবরাহ ও গৃহায়ণ খাতে ১৫ হাজার ২১৩ কোটি টাকা, শিক্ষা ও ধর্ম খাতে ১৪ হাজার ১৮৬ কোটি টাকা, স্বাস্থ্য, পুষ্টি, জনসংখ্যা ও পরিবারকল্যাণ খাতে ৯ হাজার ৬২৪ কোটি টাকা, কৃষি খাতে ৫ হাজার ২৮৩ কোটি টাকা।

অন্যদিকে বেড়েছে প্রকল্প সংখ্যাও। মূল এডিপিতে প্রকল্প ছিল ১ হাজার ৩০৮টি। কিন্তু সংশোধিত এডিপিতে এসে মোট প্রকল্প সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৬৫৮টিতে। ফলে মূল এডিপির তুলনায় সংশোধিত এডিপিতে প্রকল্প বেড়েছে ৩৫০টি।

এ ছাড়া সংশোধিত এডিপিতে বরাদ্দহীনভাবে সংযুক্ত অনুমোদনহীন প্রকল্প রয়েছে ১ হাজার ২৭টি। বৈদেশিক সহায়তা প্রাপ্তির সুবিধার্থে অনুমোদন ও বরাদ্দহীনভাবে ২৬৮টি প্রকল্প যুক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া পিপিপির (পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনাশিপ) প্রকল্প রয়েছে ৩০টি। ৩০০টি প্রকল্প সমাপ্ত করার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

বৈঠকে গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের এডিপির মূল্যায়ন প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। এক্ষেত্রে এডিপিতে বরাদ্দ খরচ করতে না পারায় বেশ কয়েকটি কারণ চিহ্নিত করে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন,পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি)। এগুলো হচ্ছে- জমি অধিগ্রহণের জটিলতা, কর্ম পরিকল্পনা ছাড়াই প্রকল্প বাস্তবায়ন শুরু করা, অর্থছাড়ে বিলম্ব, দরপত্র মূল্যায়নে দীর্ঘসূত্রিতা, সমীক্ষা ছাড়াই প্রকল্প গ্রহণ, দক্ষ ও কারিগরি জ্ঞানসম্পন্ন জনবলের অভাব, উন্নয়ন সহযোগীদের প্রকিউরমেন্ট গাইডলাইন অনুসরণ করে মালামাল ও ক্রয় কার্য সম্পন্ন করতে অসুবিধা, ঠিকাদারদের পেশাদারিত্বের অভাব, ভৌত নির্মাণ কাজের ধীর গতি ও চুক্তির মেয়াদ বৃদ্ধি ছাড়াই কার্যক্রম চালু রাখা এবং প্রকল্প প্রস্তাবনা তৈরিতে দ্রব্যের মান ও মূল্য নির্ধারণে অদূরদর্শিতা।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৬ মার্চ ২০১৮/হাসিবুল/সাইফুল

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

শিশু বিল পাস

২০১৮-১০-২২ ৯:১২:৩০ পিএম

সিরিজ জিততে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ

২০১৮-১০-২২ ৭:৩৩:৩৫ পিএম