নারীদের মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে পারলে উন্নয়ন সম্ভব

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০৮ ৬:৫৫:২৮ পিএম
নাসির উদ্দিন | রাইজিংবিডি.কম

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের অর্ধেক জনসংখ্যা নারীদের সমাজের মূলধারায় সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্ভব বলে জানিয়েছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

তিনি বলেন, দেশের অর্ধেক জনসংখ্যা নারীদের সমাজের মূলধারায় সম্পৃক্ত করার মাধ্যমে বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্ভব হবে। এজন্য নারীদের সমান সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর শিশু একাডেমিতে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ব্যাংক আয়োজিত ব্যাংকার-এসএমই নারী উদ্যোক্তা সমাবেশ ও পণ্য প্রদর্শনী মেলায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

স্পিকার বলেন, যেকোনো উদ্যোগকে সফল করতে হলে অর্থায়ন খুবই জরুরি। নীতি-নির্ধারনী পর্যায়ে নারীদের সে সুযোগ নিশ্চিত করা সম্ভব হলে নারীরা ক্ষমতায়িত হবে এবং সমাজের উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় তারা বিশেষভাবে ভূমিকা পালন করতে সক্ষম হবে। একজন নারী আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী হলে পরিবার, সমাজ এবং রাষ্ট্র উপকৃত হবে।

তিনি বলেন, নারীদের ঋণ দেওয়া নিরাপদ। কারণ যখন তারা ঋণ গ্রহণ করে তখন তারা সর্বাত্মক চেষ্টার মাধ্যমে তা পরিশোধ করে। ফলে তারা ঋণ খেলাপি হয় না। এজন্য নারীদেরকে হিসাব সম্পর্কে প্রশিক্ষিত করতে হবে, তাদের উৎপাদিত পণ্য বাজারজাতকরণ ও রপ্তানিমুখী করতে সহায়তা দিতে হবে, সেবার কার্যক্রমকে সম্প্রসারিত করতে হবে, তাদের জন্য পুরস্কার প্রবর্তনের ব্যবস্থা করতে হবে এবং প্রদত্ত সুযোগগুলোকে প্রচারের ব্যবস্থা করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীদের জন্য বিধবা ভাতা, মাতৃত্বকালীন ভাতা, ল্যাকটেটিং ভাতা, বয়স্ক ভাতা, ভিজিটি এবং প্রশিক্ষণ কার্যক্রম গ্রহণ করার ফলে বাংলাদেশে দারিদ্র্যতার হার ২৩ শতাংশে নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছেন।

নারী উদ্যোক্তাদের জন্য সমসুযোগ এবং কোনো কোনো  ক্ষেত্রে বিশেষ সুযোগ দেওয়া হচ্ছে উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, এসএমই খাতকে যথাযথভাবে এগিয়ে নিতে পারলে বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে আরো শক্তিশালী ভিতের ওপর দাঁড়াতে সক্ষম হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং বিশেষ করে দারিদ্র্য দূরীকরণের লক্ষ্যে আমরা বাংলাদেশ ব্যাংকের ভিশন ও মিশনে ‘ফাইন্যান্সিয়াল ইনক্লুশনকে’ একটি গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেছি। আমাদের মূল লক্ষ্য হল আমাদের অবহেলিত জনগোষ্ঠী যারা আর্থিক সুবিধা হতে বঞ্চিত তাদেরকে যত দ্রুত সম্ভব আর্থিক সেবার আওতায় নিয়ে আসা। সে লক্ষ্যে আমরা কটেজ, মাইক্রো, স্মল ও মিডিয়াম (সিএমএসএমই) খাতকে একটি গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার হিসেবে চিহ্নিত করে এ খাতে অর্থায়ন কার্যক্রমকে জোরদার করেছি। এসডিজির এ লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশ এক ধাপ এগিয়ে রয়েছে, কেননা অনেক আগে থেকেই বাংলাদেশ ব্যাংক নারী উদ্যোক্তা উন্নয়নের মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংক নারী উদ্যোক্তাদের পরামর্শ সেবা প্রদানের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়সহ সকল শাখা অফিসে নারী উদ্যোক্তা উন্নয়ন ইউনিট কাজ করছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক পরিচালিত পুনঃঅর্থায়নের তথ্য উপস্থাপন করে তিনি আরো বলেন, অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা অধিক হারে ঋণ পাচ্ছে। এই উদ্যোগ মূলত নারীর অর্থনৈতিক মুক্তি, নারীর ক্ষমতায়ন ও নারী উদ্যোক্তা উন্নয়নে সহায়তা করে আসছে।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ব্যাংকের উদ্যোগে প্রায় ২৬ জন নারী উদ্যোক্তাকে প্রায় ১৪ কোটি টাকা ঋণ প্রদান করা হয়।

পরে স্পিকার ব্যাংকার-এসএমই নারী উদ্যোক্তা সমাবেশ ও পণ্য প্রদর্শনী মেলার উদ্বোধন করেন এবং মেলার বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক মো. আবদুর রহিমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স, বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার শেখ মোহাম্মদ সেলিম উপস্থিত ছিলেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৮ মার্চ ২০১৮/নাসির/সাইফ

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

ফের আপত্তির মুখে সানি লিওন

২০১৮-১০-২৩ ১২:১৯:৪৪ পিএম

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ফিরছেন রোনালদো

২০১৮-১০-২৩ ১২:১৯:৩৯ পিএম

আদালতে নেওয়া হবে মইনুলকে

২০১৮-১০-২৩ ১১:৪৮:০২ এএম

দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু

২০১৮-১০-২৩ ১০:০০:১৯ এএম

টিভিতে আজকের খেলা

২০১৮-১০-২৩ ৯:৩৪:৩২ এএম