বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ: ২০১৮-১০-১২ ৫:২৩:৫৪ পিএম
কেএমএ হাসনাত | রাইজিংবিডি.কম

কেএমএ হাসনাত, বালি, ইন্দোনেশিয়া থেকে : বিশ্বব্যাংক গ্রুপ ও আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

শুক্রবার সকালে ইন্দোনেশিয়ার বালি দ্বীপের নুসা দুয়া কনভেনশন সেন্টারে এ সম্মেলনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ইন্দানেশিয়ার সোলায়সি দ্বীপে সাম্প্রতিক ভূমিকম্প ও সুনামিতে নিহতদের স্মরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

বিশ্বের ১৮৯টি দেশের অর্থমন্ত্রী, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর এবং সরকারি-বেসরকারি খাতের প্রতিনিধিরা এ সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জোকো উইদোদো, বিশ্বব্যাংক গ্রুপের প্রেসিডেন্ট কিম ইয়ং জিম এবং আইএমএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্রিস্টিন লাগার্দে।

জোকো উইদোদো তার বক্তব্যে বিশ্ব অর্থনীতির ক্রমবর্ধমান ঝুঁকি মোকাবেলায় নেতাদের সঠিক পথে চালিত করার জন্য বিশ্বের কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলোর গভর্নর এবং অর্থমন্ত্রীদের প্রতি আহ্বান জানান।

বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন, গত ২৫ বছরে বিশ্বে অতি দরিদ্র মানুষের সংখ্যা ১০০ কোটির বেশি কমেছে। এই সফলতা উল্লেখযোগ্য হলেও এখনো প্রায় ৭৪ কোটি মানুষ অতি দরিদ্র।

এই সংখ্যা ২০৫০ সালের মধ্যে অর্ধেকে নামিয়ে আনতে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সামাজিক নিরাপত্তা এবং তথ্য প্রযুক্তিতে জোর দিতে বিশ্ব নেতাদের আহ্বান জানান বিশ্বব্যাংকের প্রধান।

আইএমএফের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, গত ৭০ বছরের বেশি সময় ধরে বিশ্বের যে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি এবং সমৃদ্ধি হয়েছে তা অভূতপূর্ব। কিন্তু বিশ্ব অর্থনীতিতে সাম্প্রতিক কিছু বিরোধ এবং বাণিজ্য নিয়ে যে উত্তেজনা চলছে। তা বন্ধ না হলে বিশ্ব অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি আগামী দুই বছরে ১ শতাংশ কমে যেতে পারে। এই উত্তেজনার অবশ্যই অবসান দরকার।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ অক্টোবর ২০১৮/হাসনাত/রফিক

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

কাকরোলের গ্রাম

২০১৮-১০-১৭ ১২:১৭:৪২ পিএম

কর্ণফুলী নদীতে জাহাজে আগুন, নিহত ১

২০১৮-১০-১৭ ১২:০৫:৪৫ পিএম

অস্ট্রেলিয়া সফরে নেই ডুমিনিও

২০১৮-১০-১৭ ১২:০১:৪৪ পিএম

মহাষ্টমী, আজ কুমারী পূজা

২০১৮-১০-১৭ ১০:০২:৫১ এএম

তৃতীয় দিনের খেলা শুরু

২০১৮-১০-১৭ ৯:৫৮:৪০ এএম

এমন লজ্জায় আগে পড়েনি জার্মানি!

২০১৮-১০-১৭ ৯:৩০:৫০ এএম