ফেব্রুয়ারিতে ওয়ালটন ফ্রিজ বিক্রিতে ১১৯ শতাংশ প্রবৃদ্ধি

প্রকাশ: ২০১৯-০৩-১১ ৮:০৪:৩৭ পিএম
অগাস্টিন সুজন, আকরাম হোসেন পলাশ | রাইজিংবিডি.কম

ওয়ালটনের ‘অ্যাচিভমেন্ট সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম’ এর পুরস্কারপ্রাপ্তদের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ

অগাস্টিন সুজন এবং আকরাম হোসেন পলাশ : চলতি বছর স্থানীয় বাজারে ফ্রিজ বিক্রিতে অভাবনীয় সাফল্য দেখিয়েছে ওয়ালটন। বছরের প্রথম মাসে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি ফ্রিজ বিক্রির ধারাবাহিকতা দ্বিতীয় মাসেও বজায় রাখতে সক্ষম হয়েছে দেশীয় প্রতিষ্ঠানটি।

ফেব্রুয়ারিতে ১ লাখ ৩০ হাজার ফ্রিজ বিক্রির টার্গেট ছিল  ওয়ালটনের। মাস শেষে বিক্রি হয়েছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৭৮৭ ইউনিট। যা গত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের ফ্রিজ বিক্রির তুলনায় প্রায় ১১৯ শতাংশ বেশি।

লক্ষ্য ছাড়িয়ে যাওয়ার এই অর্জনকে সামনে রেখে সোমবার (১১ মার্চ) বিকেলে রাজধানীতে ওয়ালটন করপোরেট অফিসে ‘অ্যাচিভমেন্ট সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম’ এর আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের স্লোগান ছিল ‘অর্জনের পথে, সকলের সাথে উন্নিশ-এ বিশ’। বিক্রয় লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাওয়ার এই সাফল্যে বিশেষ অবদান রাখায় বেস্ট অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয় শীর্ষ ১০ এরিয়া ম্যানেজারকে। এদের মধ্যে একজনকে দেওয়া হয় ‘ওয়ারিয়র অব দ্যা মান্থ অ্যাওয়ার্ড’। এছাড়াও দেশব্যাপী চলমান ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৪ এর ব্যাপক প্রচারণা চালানোয় ৯ জন ডিস্ট্রিবিউটরকে দেওয়া হয় ‘বেস্ট ব্র্যান্ডিং অ্যাওয়ার্ড’।

অনুষ্ঠানে তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম আশরাফুল আলম।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের সেলস বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইভা রেজওয়ানা, ডিস্ট্রিবিউটর মার্কেটিং চ্যানেলের প্রধান মো. এমদাদুল হক সরকার, প্লাজা সেলস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট বিভাগের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ রায়হান, নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহিদ হাসান, হুমায়ূন কবির, উদয় হাকিম এবং গোলাম মুর্শেদ, মার্সেলের হেড অব সেলস ড. মো. সাখাওয়াৎ হোসেন, ওয়ালটনের ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ফিরোজ আলম, শাহজাদা সেলিম প্রমূখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক আমিন খান।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে সারা দেশে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে প্রস্তুতকৃত ৭১ হাজার ৭৫ ইউনিট ফ্রিজ বিক্রি হয়েছিল। এ বছরের একই মাসে বিক্রি হয়েছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৭৮৭ ইউনিট ফ্রিজ। সেই হিসাবে ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের তুলনায় গত মাসে ফ্রিজ বিক্রিতে প্রবৃদ্ধি হয়েছে প্রায় ১১৯ শতাংশ।

এদিকে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ১ লাখ ৪ হাজার ইউনিট ফ্রিজ বিক্রির টার্গেট ছিল ওয়ালটনের। সেখানে মাস শেষে বিক্রি হয়েছে ১ লাখ ১২ হাজার ইউনিট ফ্রিজ। গত বছরের একই মাসে সারা দেশে ফ্রিজ বিক্রি হয়েছে ৬৫ হাজার ১১৬ ইউনিট। অর্থাৎ চলতি বছরের জানুয়ারিতে গত বছরের জানুয়ারির তুলনায় ৭২ শতাংশ বেশি ফ্রিজ বিক্রি হয়েছিল দেশীয় প্রতিষ্ঠানটির।

১ম পুরস্কার (ওয়ারিওর অব দ্য মান্থ) নিচ্ছেন ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, সিলেট জোনের এরিয়া ম্যানেজার মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান

অ্যাচিভমেন্ট সেলিব্রেশন প্রোগ্রামে কর্মকর্তারা জানান, চলতি বছর ২০ লাখ ফ্রিজ বিক্রির টার্গেট নেওয়া হয়েছে। যার নাম দেওয়া হয়েছে ‘১৯ এ ২০’।  এই টার্গেট পূরণে উৎপাদন লাইন থেকে শুরু করে বিপণন বিভাগ সর্বত্র নেওয়া হয়েছে ব্যাপক কর্মপরিকল্পনা। ফ্রিজের মান আরো উন্নত হয়েছে। ডিজাইন ও কালারে এসেছে বৈচিত্র্যতা। বাজারে ছাড়া হয়েছে নতুন মডেলের সাইড বাই সাইড, গ্লাস ডোরের মতো লেটেস্ট প্রযুক্তি, বৈচিত্র্যময় ডিজাইন ও ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ফ্রস্ট ও নন-ফ্রস্ট ফ্রিজ। নতুন মডেলের এসব ফ্রিজ গ্রাহকদের মন জয় করে নিতে সক্ষম হয়েছে। সেই সঙ্গে কম্প্রেসরে ১২ বছরের রিপ্লেসমন্টে গ্যারান্টি ঘোষণা করায় ওয়ালটন ফ্রিজের প্রতি গ্রাহকদের আস্থাও আরো সুসংহত হয়েছে। এরই প্রেক্ষিতে বছরের শুরুতেই লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি ফ্রিজ বিক্রি হয়েছে ওয়ালটনের।

পুরস্কার পেলেন যারা-
বেস্ট অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ডপ্রাপ্ত এরিয়া ম্যানেজারগণ হচ্ছেন:
১ম পুরস্কার: (ওয়ারিওর অব দ্য মান্থ) মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, সিলেট জোন।
২য় পুরস্কার: নুরুল আমিন, মার্সেল ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, ঢাকা নর্থ জোন।
৩য় পুরস্কার: জামিল হোসেন, ওয়ালটন প্লাজা সেলস নেটওয়ার্ক, টাঙ্গাইল জোন।
৪র্থ পুরস্কার: সুমন মিয়া, ওয়ালটন প্লাজা সেলস নেটওয়ার্ক, গাজীপুর জোন।
৫ম পুরস্কার: শফিক হায়দার, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, বরিশাল জোন।
৬ষ্ঠ পুরস্কার: সালেহ আহমেদ, ওয়ালটন প্লাজা সেলস নেটওয়ার্ক, দিনাজপুর জোন।
৭ম পুরস্কার: মোহাম্মদ ইসমাইল, মার্সেল ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, ঢাকা ওয়েস্ট জোন।
৮ম পুরস্কার: এনামুল কবির, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, কিশোরগঞ্জ জোন।
৯ম পুরস্কার: তারিকুল হক, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, চট্টগ্রাম জোন।
১০ম পুরস্কার: মামুন আহমেদ, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর নেটওয়ার্ক, কুমিল্লা জোন।

‘বেস্ট ব্র্যান্ডিং অ্যাওয়ার্ড-ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-ফোর’ পেয়েছেন যারা-
১ম পুরস্কার: স্বর্ণা ইলেকট্রনিক্স, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউর, কামরাঙ্গীরচর, ঢাকা। এরিয়া ম্যানেজার-সোহেল রানা।
২য় পুরস্কার: টি.আর. ইলেকট্রো মার্ট, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর, হবিগঞ্জ। এরিয়া ম্যানেজার-আসাদুজ্জামান।
৩য় পুরস্কার (যৌথভাবে): মেসার্স আল নূর ইলেকট্রনিক্স, মার্সেল ডিস্ট্রিবিউটর, হোমনা, কুমিল্লা। এরিয়া ম্যানেজার-শওকত হোসেন। আনাস ইলেকট্রনিক্স, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর, পাগার, টঙ্গী। এরিয়া ম্যানেজার-মওদুদ পারভেজ মামুন।
৪র্থ পুরস্কার (যৌথভাবে) ওয়ালটন প্লাজা, শ্রীমঙ্গল রোড এবং ওয়ালটন প্লাজা এমএসআর রোড। এরিয়া ম্যানেজার-সুমন রায় চৌধুরী। স্টার ইলেকট্রনিক্স, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর, এরশাদনগর, টঙ্গী। এরিয়া ম্যানেজার-মওদুদ পারভেজ মামুন।
৫ম পুরস্কার (যৌথভাবে): খান মটরস অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স, মার্সেল ডিস্ট্রিবিউটর, ফুলপুর, ময়মনসিংহ। এরিয়া ম্যানেজার-মোজাম্মেল হক। ড্রিম ইলেকট্রনিক্স, ওয়ালটন ডিস্ট্রিবিউটর, আশুলিয়া। এরিয়া ম্যানেজার-মাসুদ সোহেল।
৬ষ্ঠ পুরস্কার: ওয়ালটন প্লাজা, আশুলিয়া। এরিয়া ম্যানেজার- জাহিদুল ইসলাম।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ মার্চ ২০১৯/সুজন/পলাশ/সাইফ

     


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

দারুণ সময় পার করছি: অপু

২০১৯-০৫-২৪ ১:১০:৫১ পিএম
আইলার ১০ বছর

‘আর কত লড়াই করব?’

২০১৯-০৫-২৪ ১২:৫৮:০৪ পিএম

ভোটের লড়াইয়ে তারকাদের ফল

২০১৯-০৫-২৪ ১২:৪০:৫৬ পিএম

টিভিতে আজকের খেলা

২০১৯-০৫-২৪ ১১:৪৩:৪০ এএম

তৃতীয় সপ্তাহেও কমেছে সবজির দাম

২০১৯-০৫-২৪ ১০:৪৮:৪৪ এএম