ঢাকাকে বাঁচাতে খাল পুনরুদ্ধার করুন

প্রকাশ: ২০১৭-১১-১৯ ৭:৫৪:১৮ পিএম
আলী নওশের | রাইজিংবিডি.কম

ঢাকা শহরে জলাবদ্ধতার অন্যতম প্রধান কারণ রাজধানীর খাল ভরাট ও বেদখল হয়ে যাওয়া। আগে যেসব খাল দিয়ে মহানগরীর পানি নিষ্কাশন হতো, সহজে পণ্য পরিবহন করা যেত। কিন্তু এখন সেসব খাল ভরাট হয়ে যাওয়ায় ঢাকা জলাবদ্ধ নগরীতে পরিণত হচ্ছে। রাজধানীর খাল এবং জলাশয়গুলো অবৈধভাবে দখল ও ভরাট করে স্থাপনা নির্মাণের পাশাপাশি খাল-জলাশয়ে ময়লা-আবর্জনা ফেলায় সেসব ভরাট করায় স্বাভাবিকভাবে পানি নামতে পারে না। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে নগরবাসীকে। বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়ছে ঢাকা।

রাজধানীর খাল উদ্ধার ও খাল দখলকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে কয়েকটি পরিবেশবাদী সংগঠন গত শনিবার মানববন্ধন করেছে। এতে বক্তারা বলেছেন, ঢাকা শহরের ভেতরে ও চারপাশের খালগুলো রক্ষা এবং সচল রাখতে না পারলে ঢাকা হয়ে উঠবে জলাশয়বিহীন রাজধানী। ভূগর্ভস্থ পানি ক্রমে নিচে নেমে যাবে। এতে তাপমাত্রা বৃদ্ধিসহ নানা পরিবেশ সংকটের সৃষ্টি হবে। জনজীবনে এর প্রভাব হবে সুদূরপ্রসারী। তারা ঢাকার খাল পুনরুদ্ধার করে পানির প্রবাহ নিশ্চিতের দাবি জানান। এছাড়া খাল দখলে জড়িতদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবি জানান।

বস্তুতঃ রাজধানী ঢাকার খালগুলো ধ্বংসের একটি বড় কারণ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা আর অজ্ঞতা। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে খাল-জলাশয় ভরাট এবং দখল করছে স্থানীয় প্রভাবশালী ও স্বার্থান্বেষী মহল। অপরিকল্পিত নগরায়নসহ ভূমিদস্যুদের বেপরোয়া কার্যক্রমে প্রায় বিলীন হয়ে যাচ্ছে ঢাকার খালগুলো। এছাড়া দখল ও দূষণে ক্রমেই সংকুচিত হয়ে পড়ছে এসব খাল। সরকারের কিছু উদ্যোগ ঢাকার খালগুলো অবৈধ দখল উচ্ছেদে ভূমিকা রাখলেও দেখা গেছে সমন্বয়হীনতার কারণে উদ্ধার করা জায়গা স্থানীয় প্রভাবশালী ও স্বার্থান্বেষী মহল পুনরায় দখল করছে। আর যেগুলোর অস্তিত্ব আছে তা ক্রমশ সংকুচিত হচ্ছে।

বর্তমানে ঢাকা মহানগরীতে একটু বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে অলি-গলির রাস্তায় হাঁটু থেকে কোমর সমান পানি জমে যায়। কোনো কোনো স্থানে বাড়ি-ঘর, দোকানপাটে পানি ঢুকে যায়। লোকজনের স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হয়। জলাবদ্ধতার কারণে সৃষ্টি হয় যানজট। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েন নগরবাসী। এছাড়া নোংরা-ময়লা পানি জমে গিয়ে পরিবেশের ক্ষতি করছে।

খাল-জলাশয়গুলো উদ্ধার করে পানি নেমে যাওয়ার স্বাভাবিক পথ তৈরি হলে নগরীতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হতো না। ঢাকা শহরের খালগুলো সচল করতে না পারলে রাজধানীর জনজীবনের জন্য তা বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। খাল-জলাধার ভরাট ও দখল করা পরিবেশ আইন, পরিবেশ নীতিমালা ও প্রাকৃতিক জলাধার আইনের পরিপন্থী হলেও কেউ তার তোয়াক্কা করছে না। এ অবস্থার অবসানে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

আমাদের প্রত্যাশা, ঢাকা মহানগরীকে বাঁচাতে এর জলাবদ্ধতা দূর করার জন্য দ্রুত এবং যথাযথ পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে। এক্ষেত্রে অবিলম্বে দখল হয়ে যাওয়া খাল পুনরুদ্ধার করার পাশাপাশি দখলদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। খালসহ সব জলাশয়ে ময়লা-আবর্জনা ফেলা বন্ধ করতে হবে এবং একইসঙ্গে খাল ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ বন্ধ করতে হবে। খালের জায়গায় নতুন করে যাতে কোন স্থাপনা গড়ে উঠতে না পারে তার ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে খালে পানি প্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ নভেম্বর ২০১৭/আলী নওশের/শাহনেওয়াজ

   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

বাংলায় এলো কাইজালা অ্যাপ

বাংলায় এলো কাইজালা অ্যাপ

২০১৮-০২-২০ ৮:২৬:০৭ পিএম
যশোরে ২ কেজি সোনাসহ ভারতীয় আটক

যশোরে ২ কেজি সোনাসহ ভারতীয় আটক

২০১৮-০২-২০ ৮:১৬:৩২ পিএম