গ্যাস সিলিন্ডার

নিয়মিত পরীক্ষা ও মান নিয়ন্ত্রণ জরুরি

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-০২ ৯:২৯:১৬ পিএম
আলী নওশের | রাইজিংবিডি.কম

অকালে ঝরে গেল চার চারটি মেধাবি তরুণের প্রাণ। ময়মনসিংহের ভালুকায়  একটি বাড়িতে  গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে তাদের। খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট)  এ চার শিক্ষার্থী ভালুকায় একটি তৈরি পোশাক কারখানায় ইন্টার্ন করার জন্য গিয়েছিলেন। সেখানে ছয়তলা একটি ভবনের তিন তলায় একটি বাসা ভাড়া নিয়েছিলেন। ওই বাসাতেই ২৪ মার্চ  রাতে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে  মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটে তাদের।

শুধু ভালুকায় নয় মাঝে মাঝেই এরকম দুর্ঘটনা ও হতাহতের খবর দেখতে পাই আমরা প্রায়ই পত্র-পত্রিকা কিংবা টেলিভিশনে। শুধু বাসা-বাড়িতে নয় বিস্ফোরণ ঘটছে যানবাহনেও। রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি একটি চাইনিজ রেস্তোরাঁয় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ১৪ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজারে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ম্ফোরণে দু'জন নিহত ও  পাঁচজন আহত হয়েছে। গত বছরের ১৫ অক্টোবর আশুলিয়ায় একটি কারখানায় সিলিন্ডার বিস্ফোরণে  এক নারী শ্রমিকের মৃত্যু হয়।  একই বছরের ২০ ডিসেম্বর  রাজধানীর শাহবাগে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন লেগে  যায়। দ্রুত নেমে যাওয়ায় যাত্রীরা কেউ হতাহত হননি।  চট্টগ্রামের খুলশি ফিলিং স্টেশনে গ্যাস নেয়ার সময় সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দুজন আহত হন। মানিকগঞ্জের ঘিওরে একটি বাসে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ১৬ যাত্রী অগ্নিদগ্ধ হন।

দেখা যাচ্ছে  ঢাকাসহ সারাদেশে  সিলিন্ডার বিস্ফোরণে  দুর্ঘটনা নিয়মিত বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঘরে ঘরে সিলিন্ডারের ব্যবহার বেড়ে যাওয়ায়   প্রায়শঃ দুর্ঘটনা ঘটছে। কিন্তু কেন ঘটছে সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা? এক্ষেত্রে প্রথমেই প্রশ্ন আসে গ্যাস সিলিন্ডারের মান নিয়ে। সিলিন্ডার মানসম্মত হলে বিস্ফোরণ হওয়ার কথা নয়। অভিযোগ রয়েছে বাজারে নিম্নমানের ও পুরনো সিলিন্ডার ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকে খরচ কমাতে নিম্নমানের সিলিন্ডার  ব্যবহার করেন। কিছুটা কম দামে পাওয়া যায় বলে অনেক গ্রাহক  নিম্নমানের সিলিন্ডারের প্রতি আগ্রহী হচ্ছেন। আবার অনেক ক্রেতা নিরাপত্তা সিল না দেখেই নিম্নমানের সিলিন্ডার কিনছেন।

প্রশ্ন আছে সিলিন্ডার ও সিএনজি কনভারশনের অন্যান্য সরঞ্জামের পরীক্ষা ও রক্ষণাবেক্ষণ নিয়েও। এসব নিয়মিত পরীক্ষা করা হয় না বলে অভিযোগ রয়েছে। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে চলাচলকারী সিএনজিচালিত অধিকাংশ গাড়ির গ্যাস সিলিন্ডার নিয়মিত পরীক্ষা করা হয় না। ফলে সেসব গাড়িতে বিস্ফোরণের ঝুঁকি থেকে যায়। 

আমরা মনে করি, জরুরিভিত্তিতে সারা দেশে ত্রুটিপূর্ণ ও মেয়াদোত্তীর্ণ গ্যাস সিলিন্ডারসমূহ চিহ্নিত করা দরকার। সিলিন্ডার যেহেতু পুনঃব্যবহারযোগ্য, তাই নিয়মিত পরীক্ষার ব্যবস্থা থাকা  প্রয়োজন।  সরকারিভাবে সিলিন্ডার পরীক্ষা ও বদলে নেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে।  সিলিন্ডারের আদর্শ মান ও নিরাপদে ব্যবহার নিশ্চিতকরণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের  দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরি। পাশাপাশি ব্যবহারীদেরও সচেতন হতে হবে। সিলিন্ডার কেনার সময় এর মেয়াদ ও মানের দিকে নজর দিতে হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২ এপ্রিল ২০১৮/আলী নওশের

   
 


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

সাফল্যে রঙিন বছর

২০১৮-১২-১৫ ১০:৫২:৩২ পিএম

যে ২৫ পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন না

২০১৮-১২-১৫ ৮:৪৬:৫০ পিএম

৩০ ডিসেম্বর ভোটের বিপ্লব হবে : রব

২০১৮-১২-১৫ ৭:৫৯:৫০ পিএম