শিক্ষা ও কর্মক্ষেত্রের ব্যবধান কমিয়ে আনতে হবে : ড. মসিউর

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১০ ৪:৫৪:৩৩ পিএম
মুহাম্মদ নূরুজ্জামান | রাইজিংবিডি.কম

এনইউবিটি খুলনা ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী ‘জব ফেয়ার’ এর উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা : প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান বলেছেন, শিক্ষা ও কর্মক্ষেত্রের মধ্যে ব্যবধান কমিয়ে আনতে হবে। এজন্য বিশ্ববিদ্যালয় ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সমন্বয় থাকতে হবে।

তিনি শনিবার দুপুরে নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি (এনইউবিটি) খুলনা ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী ‘জব ফেয়ার’ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।

অর্থ উপদেষ্টা বলেন, দক্ষিণবঙ্গের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন এবং নতুন নতুন কর্মসংস্থান তৈরিতে এ ধরনের আয়োজন অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে বাজারে চাহিদা অনুযায়ী শিক্ষা দিয়ে তরুণদের  তৈরি করতে হবে, যাতে করে লেখাপড়া শেষ করে চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে হতাশা কাজ না করে।

মসিউর রহমান বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সুবিধা উল্লেখ করে বলেন,  এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বাধাধরা কারিকুলামের বাইরে সময়োপযোগী শিক্ষা প্রদানের সুযোগ বেশি থাকে। এছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে বিশ্ববিদ্যালয় থাকার ফলে মেয়েদের উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ আরও বৃদ্ধি পায়। উপদেষ্টা এ ধরনের আয়োজন ভবিষ্যতে আরও বড় আকারে করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ও এ অঞ্চলের প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মো. আব্দুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন এনইউবিটির ভাইস চেয়ারম্যান ফয়সাল এম রহমান, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা প্রফেসর ড. মো. নুরুন্নবী মোল্লা এবং প্রফেসর ড. এমএমএ হাসেম।

দিনব্যাপী এ জব ফেয়ারে খুলনাঞ্চলের ৩০টি শিল্প প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা অংশ্রগ্রহণ করে। এতে  নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির শিক্ষার্থীরা ছাড়াও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, কুয়েটসহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপুল সংখ্যক ছাত্রছাত্রী অংশগ্রহণ করেন। মেলায় শিক্ষার্থীরা তাদের পছন্দ অনুযায়ী বিভিন্ন চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানে তাদের সিভি জমা দেন।



রাইজিংবিডি/খুলনা/১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/মুহাম্মদ নূরুজ্জামান/মুশফিক

   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

খালের নাম বামনশাহী

খালের নাম বামনশাহী

২০১৮-০২-২৪ ১:২৬:৫১ পিএম
সাংবাদিক হানিফ মাহমুদ মারা গেছেন

সাংবাদিক হানিফ মাহমুদ মারা গেছেন

২০১৮-০২-২৪ ১২:৫১:০৯ পিএম
পানি পান যখন বিপজ্জনক

পানি পান যখন বিপজ্জনক

২০১৮-০২-২৪ ১২:৩৮:১৫ পিএম