দুই উপন্যাস নিয়ে বইমেলায় কাজী রাফি

প্রকাশ: ২০১৮-০২-১২ ১:০২:২৫ পিএম
সাইফ | রাইজিংবিডি.কম

ডেস্ক রিপোর্ট : অমর একুশে বইমেলায় (২০১৮) প্রকাশিত হয়েছে কথাসাহিত্যিক কাজী রাফির দুটি উপন্যাস।

উপন্যাস ‘গ্রামটির নাম গোধূলিমায়া’ প্রকাশিত হয়েছে সময় প্রকাশন থেকে। উপন্যাসটি সম্পর্কে ফ্ল্যাপে লেখা হয়েছে, একজন ঔপন্যাসিককে মূল চরিত্রে হিসেবে চিত্রণ করতে গিয়ে কাজী রাফি সৃষ্টি-রহস্যের অন্তরালের যাতনা এবং গোপন শক্তির সূত্রকেও ‘গ্রামটির নাম গোধূলিমায়া’য় সফলতার সাথে খুঁজেছেন। সৃষ্টিশীল একজন লেখক এবং শিল্পীর মনলোকে বাস করা দর্শন অথবার চেতনার ধরনকে শনাক্তকরণে লেখকের অনুসন্ধিৎসা তার লেখক সত্তার শক্তিমত্তার পরিচায়ক। পাশাপাশি ধর্মের কাঁধে ভর করা স্বার্থান্বেষি চক্রের মুখোশ উন্মোচনে ঔপন্যাসিকের মুন্সিয়ানা এই উপন্যাসকে দিয়েছে ভিন্নতর মাত্রা। তার কলমের আঁচড়ে সমাজের অধঃপতনের চিত্রটিও তিনি তার চিরায়ত মনমুগ্ধকর ভাষায় আর পাখির বাসা বুঁননের দক্ষতার মতো শব্দের পর শব্দচয়নে শৈল্পিক ক্যানভ্যাসে তিনি পরিস্ফুট করেছেন।

কাজী রাফির দ্বিতীয় উপন্যাস ‘আঁধারে লুকানো সুর’। বইটি প্রকাশ করেছে পার্ল পাবলিকেশন্স। উপন্যাসটি সম্পর্কে ফ্ল্যাপে লেখা হয়েছে, কাজী রাফি উপলব্ধ জীবন বৈচিত্র্যকে সুনিপূনভাবে তার উপন্যাসের উপজীব্য করতে পারেন। জীবনকে তৃতীয় নয়ন দিয়ে দেখা মানবিক আর্তির সাথে এই সমাজের আনাচে-আনাচে ছড়িয়ে পড়া ক্যানসার এবং সামাজিক ক্ষতগুলো হৃদয়ের গহীনে তোলপাড় এক অনুভব তৈরি করে। কুৎসিত আর কদর্যতা বর্ণনা করতে করতে সত্যকে, সুন্দরকে খোঁজার জন্য তার গতিময় কলমের টানটান বেদনা এবং যাতনা আমাদের মন্ত্রমুগ্ধ, সচকিত করে। উপলব্ধি জাগানোর জন্য জীবন সম্পর্কে উপলব্ধিহীন মানুষদের কদর্যতাকে তার কলম স্পষ্ট এবং সত্যভাষণে দৃঢ়তার সাথে ফুটিয়ে তোলে। তাদের কলুষিত সত্তাকে কেটে কেটে বের করে আনে তাদের পুঁজময়, দূষিত রক্তকে। গদ্যের বড় পরিসরে তার পটুত্বের বিস্তরণ থাকে নিষ্কন্টক। গল্পের শুরু থেকে ভালো লাগার রেশ নিয়ে শেষ পর্যন্ত অবলীলায় বিচরণ করা যায়। একজন সংবেদনশীল, পরিপক্ক লেখকের মুন্সিয়ানা আর পটুত্ব বটে!



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/সাইফ

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

শিশু বিল পাস

২০১৮-১০-২২ ৯:১২:৩০ পিএম

সিরিজ জিততে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ

২০১৮-১০-২২ ৭:৩৩:৩৫ পিএম