শিশুদের হাতে আত্মঘাতি উৎসবের উপহার

প্রকাশ: ২০১৮-০১-১১ ৮:১০:১৮ এএম
রাশিদা নূর | রাইজিংবিডি.কম

রাশিদা নূর: প্রতি বছর জানুয়ারির ছয় তারিখ খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের লোকজন ‘অফেপিনি’ নামে  উৎসব পালন করে। উৎসবটি ‘লিটল ক্রিসমাস’ নামেও পরিচিত। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নাচ-গান, কেক কেটে দিনটি উদযাপন করা হলেও পর্তুগালের ভেল দো সেলগুয়েরিও গ্রামের চিত্র ভিন্ন। এই গ্রামে দিবসটি উপলক্ষে শিশুদের হাতে ধরিয়ে দেয়া হয় সিগারেট।

অদ্ভুত হলেও সত্যি যে, পাঁচ বছরের শিশু থেকে শুরু করে ওই দিনটিতে সব ছেলেমেয়ারা সিগারেটের নেশায় বুঁদ হয়ে থাকে। তারা অভিভাবকদের কাছ থেকে সেদিন দামি ব্র্যান্ডের সিগারেট উপহার হিসেবে পায়। জানা গেছে, গ্রামের পুরনো রীতি অনুযায়ী উৎসবের সময় ধূমপান করতে হয় কিশোর-কিশোরীদের। লুসিয়া নামের বছর দশেকের একটি মেয়ে জানায়, গত বছর উৎসবের দিন সে প্রায় তিন প্যাকেট সিগারেট শেষ করেছে। বহু বছর ধরে চালু এই রীতিতে ক্ষতি হচ্ছে ওই গ্রামের শিশুদের। বাড়ছে ক্যানসারের আশঙ্কা। তবে এসব কথায় কান দিতে নারাজ গ্রামের প্রবীণরা। পুরনো এই রেওয়াজ চালু থাকার পক্ষেই কথা বলছেন তারা।

গিলহারমিনা মাটিস নামক স্থানীয় এক দোকানি বলেন, ‘এই দিবসে আমি ছেলেমেয়েদের সিগারেট দেই। তবে আমি এর কারণ ব্যাখ্যা করতে পারব না। তাছাড়া আমি তো এর ক্ষতি দেখছি না। ওরা সিগারেটে টান দেয় আর দ্রুত ধোঁয়া ছাড়ে। কেবল দিবসটিতেই তারা সিগারেট হাতে নেয়, অন্য কোনোদিন সিগারেট চায়ও না। তাহলে খারাপ কিছু হওয়ার কথা না।’

অথচ ধূমপান স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর এ কথা আজ কারো অজানা নয়। বিশ্বব্যাপী ধূমপানের প্রচারণায় রয়েছে বিভিন্ন বাধানিষেধ। তারপরও যুগ যুগ ধরে ওই গ্রামে এই রেওয়াজ কীভাবে টিকে আছে বিষয়টি নিয়ে অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করেছেন এবং অভিভাবকদের এ ধরনের আত্মঘাতি রীতি মেনে না চলার পরামর্শ দিয়েছেন।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ জানুয়ারি ২০১৮/মারুফ/তারা

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

সাহিত্য সংবাদ

২০১৮-০৯-২১ ৯:২১:২৩ এএম

নতুন লড়াইয়ে পুরনো উত্তাপ

২০১৮-০৯-২১ ৮:৩৭:২৯ এএম