বই কেনা তার নেশা

প্রকাশ: ২০১৮-০২-২৩ ৪:২২:৩২ পিএম
এম আর লিটন | রাইজিংবিডি.কম

এম আর লিটন : চাকরি করে জীবনে যা উপার্জন করেছেন, তার বেশিরভাগ অর্থ সংসার চালানোর পাশাপাশি ব্যয় করেছেন বই কেনার জন্য। বই সংগ্রহ করে নিজ বাসভবনে গড়েছেন বিশাল ব্যক্তিগত লাইব্রেরি। বই কেনা তার নেশা।

বলছিলাম বইপ্রেমী মজিবর রহমানের (৬৩) কথা, তিনি বসবাস করেন মানিকগঞ্জ শহরের রিজার্ভ ট্যাংক (নগর ভবন) এলাকায়। চাকরি করেছেন সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে, বর্তমানে অবসর জীবনযাপন করছেন।

মজিবর রহমান যখন হাই স্কুলের ছাত্র ছিলেন তখন থেকে বই পড়ার প্রতি তার আগ্রহ। নিয়মিত বই কিনতেন, এছাড়াও বন্ধুদের কাছ থেকে বই সংগ্রহ করতেন। এভাবেই তিনি বইপ্রেমিক হয়ে ওঠেন। তিনি জানান, বন্ধুরা যখন ঈদের কেনাকাটা করতেন তখন তিনি সেই টাকা দিয়ে বই কিনতেন। এছাড়া তিনি যখন চাকরিতে যোগ দেন তখন বেতনের অধিকাংশ টাকা দিয়ে বই কিনতে শুরু করেন। এখন তার সংগ্রহে রয়েছে প্রায় ৫ হাজার বই। এই বই দিয়ে গড়ে তুলেছেন বিশাল ব্যক্তিগত লাইব্রেরি।

সরেজমিনে তার বাসায় গিয়ে দেখা যায়, তার সংরক্ষণে হাজারও বইয়ের সমাহার। বাসার দুই-তিনটি রুমে সুন্দর করে সাজিয়ে রাখা হয়েছে বই। এ যেন বই এর অরণ্য। তার বইয়ের মোট নিদিষ্ট সংখ্যা জানা যায়নি। আনুমানিক ধারণা করা হয়েছে তার সংরক্ষণে পাঁচ হাজারের মতো বই হবে। মানিকগঞ্জের মতো ছোট জেলা শহরে ব্যক্তিগত উদ্যোগে এতসব বই সংগহ করা দুরূহ ব্যাপার।



তার লাইব্রেরিতে সংরক্ষিত বইগুলোর মধ্যে ধর্ম, বিজ্ঞান, ইতিাহাস, রাজনীতি, অর্থনীতি, সাংস্কৃতিক সহ নানা বিষয়ক বই রয়েছে। এর মধ্যে অনেক বই দুর্লভ, যা এখন আর বাইরে সচরাচর কিনতে পাওয়া যায় না।

বইপ্রেমী মজিবর রহমান বললেন, ‘বই পড়লে মানুষের মনোভাবের পরিবর্তন সহ নতুন কিছু চিন্তার আবির্ভাব ঘটে। বইয়ের মাধ্যমে মানুষের সঙ্গে মানুষের যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে, সে বন্ধুত্বে থাকে গভীর বিশ্বাস ও ভালোবাসা। ভালো বই মানুষকে সৃজনশীল করে। মনের অন্ধকার, অজ্ঞতা দূর করে মানুষকে নির্মল আনন্দ দেয়।’

তিনি এই লাইব্রেরি নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখেন। ভবিষ্যতে আরো বই সংগ্রহ করে তার এই লাইব্রেরি বড় করার পরিকল্পনা রয়েছে। নতুন প্রজন্মকে বই পড়তে উৎসাহিত করার জন্য লাইব্রেরিতে বসে বই পড়ার সুযোগ করে দেয়ার পরিকল্পনাও তার রয়েছে। সমাজের প্রতি দায়িত্ববোধ থেকেই তিনি বই সংরক্ষণ করে লাইব্রেরি গড়ে তুলেছেন।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮/ফিরোজ/তারা  

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

শিশু বিল পাস

২০১৮-১০-২২ ৯:১২:৩০ পিএম

সিরিজ জিততে চট্টগ্রামে বাংলাদেশ

২০১৮-১০-২২ ৭:৩৩:৩৫ পিএম