‘জন্মের পর ঠিকমতো খাবার জোটেনি’

প্রকাশ: ২০১৮-০৪-০৭ ১১:৫১:৩৭ এএম
আমিনুর রহমান হৃদয় | রাইজিংবিডি.কম

মোহাম্মদ মামুন

আমিনুর রহমান হৃদয় : ‘ছোট থাকতে সৎ বাবা অনেক মারপিট করতো আমাকে। বাড়ি থেকে বের করে দিতো। আমার মা এগিয়ে এলে তাকে মারধর করতো। সৎ বাবা একবেলা খাবারই খেতে দিত না বাড়িতে। কোনো কোনো দিন অনাহারে থেকেছি।’ কথাগুলো মোহাম্মদ মামুন বলছিল। বয়স ১৫ বছর।

সম্প্রতি কথা হয় তার সঙ্গে। বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার সিনেমা হল এলাকায়। ছোট থাকতেই তার বাবা কাশেম আলী মারা যায়। বাবার কোনো স্মৃতি মনে নেই মামুনের। মা শরিফা বেগমের কাছেই এখন থাকে সে।

মামুন বলেন, ‘৬-৭ বছর বয়সেই মা আমাকে হোটেলে কাজ করতে ঢুকিয়ে দেয়। এরপর বাদাম ও আলুর পাপড় বিক্রি করতাম। এখন নিজে টাকা জমিয়ে ভ্যান গাড়ি কিনে ঝালমুড়ি ও বাদাম বিক্রি করছি।’

নিজের মাকে সঙ্গে নিয়েই এখন মামুনের সংসার। তার মা প্রতিদিন তাকে বাদাম সহ দোকানের জিনিসপত্র গুছিয়ে দেয়। সকাল ৯টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত শহর ও গ্রাম ঘুরে ঘুরে এসব বিক্রি করে মামুন। বর্তমানে এসব বিক্রি করে লাভ হচ্ছে জানিয়ে সে বলে, ‘প্রতিদিন ৫০০-৬০০ টাকা বিক্রি হয়। এদিয়ে মা ও আমার খরচ চলে যায়।’
 


লেখাপড়ার ইচ্ছে ছিল কি না জানতে চাইলে বলে, ‘যেখানে জন্মের পর ঠিকমতো খাওয়াই জুটেনি, সেখানে লেখাপড়া করবো কিভাবে? যদি আমার নিজের বাবা বেঁচে থাকতো, তাহলে উনি আমাকে কাজ করতে দিতেন না। লেখাপড়া করাতেন।’

ভবিষ্যতের ইচ্ছে জানতে চাইলে বলে, ‘টাকা জমিয়ে জমি কিনবো। সেখানে সুন্দর একটি বাড়ি করবো। দুই-তিনটা গরু কিনে পালন করবো। মাকে দেখাশুনা করবো।’

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৭ এপ্রিল ২০১৮/ফিরোজ

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

রেকর্ড গড়ে পাকিস্তানকে হারাল ভারত

২০১৮-০৯-১৯ ১১:৫৯:৪৭ পিএম

সড়ক পরিবহন আইন পাস

২০১৮-০৯-১৯ ১০:৫৫:৩৪ পিএম

ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল পাস

২০১৮-০৯-১৯ ১০:৩৪:১৩ পিএম

‘কারো মান ভাঙাতে আর যাব না’

২০১৮-০৯-১৯ ৮:২৭:৫৪ পিএম
বাজে আউটফিল্ড

খুলনায় খেলা বন্ধের ঘটনায় তোলপাড়

২০১৮-০৯-১৯ ৭:৫৪:৩৭ পিএম