ভয়ঙ্কর সব সন্ত্রাসী হামলা

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-২৫ ৪:৩৮:২৩ পিএম
আহমেদ শরীফ | রাইজিংবিডি.কম

প্রতীকী ছবি

আহমেদ শরীফ : গত রোববার শ্রীলঙ্কায় তিনটি গির্জা, তিনটি হোটেলসহ আটটি স্থানে সিরিজ বোমা হামলায় নিহত হয়েছেন ৩০০-এর বেশি, আহত হয়েছেন প্রায় ৫০০ জন। এই সন্ত্রাসী হামলা ইতিহাসের ভয়াবহ অন্য সব হামলার তালিকায় উঠে এসেছে। বিশ্ববাসী এই হামলার বিরুদ্ধে তাদের প্রতিক্রিয়ায় নিন্দা জানিয়েছেন। শোকাতুর হয়েছে মানুষ। সন্ত্রাসীদের নৃশংস হামলায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সাম্প্রতিক সময়ে নিহত হয়েছেন শত শত মানুষ- চলুন জেনে নেই সেসব হামলার সংক্ষিপ্তসার।

* তিকরিত, ইরাক : ২০১৪ সালের ১২ জুন জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট ইরাকের তিকরিতে ক্যাম্প স্পেইসারে ইরাকি এয়ার ফোর্স ক্যাডেটদের উপর হামলা করে। এই ঘটনায় ১৫৬৬ জন শিয়া ও অমুসলিম ক্যাডেট মারা যায়।

* ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গো : ২০০৮ সালের ২৪-২৬ ডিসেম্বর লর্ডস রেজিস্ট্যান্স আর্মি নামে উগান্ডার বিদ্রোহী সংগঠন কঙ্গোর কয়েকটি গ্রামে হামলা চালায়। সেসময় গ্রামবাসী ক্রিসমাস ডে উদযাপন করছিল। হামলায় অন্তত ৬২০ জন মারা যায়। 

* মোগাদিসু, সোমালিয়া : ২০১৭ সালের ১৪ অক্টোবর মোগাদিসুতে বোমাসহ দুটি ট্রাক নিয়ে আত্মঘাতী হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। এতে ৫০০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়। আহত হয় ৩০০-এর বেশি। হামলার জন্য জঙ্গি সংগঠন আল-শাবাবকে দায়ী করে সোমালিয়া সরকার।

* মসুল, ইরাক : ২০০৭ সালের ১৪ আগস্ট ইরাকের মসুলে ইয়াজিদি সম্প্রদায়ের উপর গাড়ি বোমা হামলায় অন্তত ৫০০ জন নিহত ও ১৫০০ জন আহত হয়। এ হামলার জন্য আল কায়েদাকে দায়ী করা হয়।

* কারাদা, বাগদাদ : ইরাকের কারাদা এলাকায় ২০১৬ সালের ৩ জুলাই শিয়া মুসলিমদের উপর হামলা চালায় জঙ্গি সংগঠন আইএস অর্থাৎ ইসলামিক স্টেট। এতে অন্তত ৩৪০ জন নিহত হয়, আহত হয় কয়েক শ মানুষ।

* বেসলান, রাশিয়া : ২০০৪ সালের ১ সেপ্টেম্বর রাশিয়ার বেসলানে একটি স্কুলে সন্ত্রাসীরা হামলা করে। তিনদিন ওই স্কুলটিতে শিশুসহ হাজারখানেক মানুষকে জিম্মি করে রাখে রিয়াদ উস সালেহিন নামে চেচেন জঙ্গি সংগঠন। এ সময় তারা হত্যা করে ৩৩৪ জনকে। তাদের মাঝে শিশু ছিল ১৮৬ জন।

* বার আল আবেদ, মিশর: ২০১৭ সালের ১৭ নভেম্বর মিশরের বার আল আবেদ সিটির আল রাওদা মসজিদে ৪০ জন বন্দুকধারী হামলা চালায়। গুলি করে হত্যা করা হয় ৩১১ জনকে।

* সিনাই, মিশর: ২০১৭ সালের ২৪ নভেম্বর মিশরের সিনাইয়ে একটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয় ৩০৫ জন। ইসলামিক স্টেট জঙ্গি সংগঠন এই হামলার জন্য দায়ী বলে ধারণা করা হয়।

* গামবোরু-নাজালা, নাইজেরিয়া : ২০১৪ সালের মে মাসের ৫ ও ৬  তারিখে নাইজেরিয়ার গামবোরু ও নাজালা শহরে জঙ্গি সংগঠন বোকো হারাম হামলা চালায়। এ ঘটনায় নিহত হয় ৩০০-এর বেশি মানুষ।

* সুইদা, সিরিয়া : ২০১৮ সালের ২৫ জুলাই সিরিয়ার সুইদা সিটিতে আইএস জঙ্গিরা আত্মঘাতী বোমা হামলায় হত্যা করে অন্তত ২৫৮ জনকে।

* সিনাই, মিশর : ২০১৫ সালের ৩১ অক্টোবর, রাশিয়ার একটি যাত্রীবাহী বিমান সন্ত্রাসীদের গুলিতে ভূপাতিত হয়। এতে ওই বিমানে থাকা ২২৪ জন যাত্রীর সবাই নিহত হয়। জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট এই হামলার দায় স্বীকার করে জানায়, সিরিয়ায় রাশিয়ার বিমান হামলায় মুসলিম হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে এই হামলা করেছে তারা।

* বাগদাদ, ইরাক : ২০১৬ সালের ৪ জুলাইয়ে আইএস জঙ্গিদের এক হামলায় ইরাকের বাগদাদে নিহত হয় অন্তত ২১৫ জন।

* মাদ্রিদ, স্পেন : ২০০৪ সালের ১১ মার্চ, স্পেনের মাদ্রিদে কয়েকটি কমিউটার ট্রেনে একসঙ্গে বোমা হামলা চালায় আল কায়েদা। এতে মারা যায় ১৯৩ জন। আহত হয় আরো অন্তত ২ হাজার মানুষ।

তথ্যসূত্র: ওয়াশিংটন পোস্ট



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৫ এপ্রিল ২০১৯/ফিরোজ

     


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

টিভিতে আজকের খেলা

২০১৯-০৫-২৪ ১১:৪৩:৪০ এএম

তৃতীয় সপ্তাহেও কমেছে সবজির দাম

২০১৯-০৫-২৪ ১০:৪৮:৪৪ এএম

পাকিস্তানের ‘মিশন ইম্পসিবল’!

২০১৯-০৫-২৪ ৯:১৮:৪৮ এএম

চট্টগ্রামে ৫৪ রোহিঙ্গা আটক

২০১৯-০৫-২৪ ৯:১১:২১ এএম