রোহিঙ্গাদের ওপর আন্তর্জাতিক আইনে অপরাধ করেছে মিয়ানমার

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-১৩ ৪:৪২:২২ পিএম
শাহেদ হোসেন | রাইজিংবিডি.কম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক দপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার আন্তর্জাতিক আইনের আওতায় অপরাধ করেছে। রোহিঙ্গা নির্যাতনে সেনা সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ সংগ্রহ করে তা আন্তর্জাতিক আদালতে উত্থাপন করতে একটি কমিটি গঠনের আহ্বানও জানিয়েছেন তারা। সোমবার মানবাধিকার কাউন্সিলে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক বিশেষ দূত ইয়াংহি লি এ আহ্বান জানিয়েছেন।

লি বলেছেন, ‘মিয়ানমারে নির্যাতনের যে চর্চা প্রাক্তন সেনা সরকারের আমলে ছিল তা আবারও প্রথা হিসেবে ফিরে এসেছে।’

গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে কঠোর দমন অভিযান শুরু করে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। এসসময় মিয়ানমার সেনাদের হাতে ধর্ষণ, হত্যা ও নির্যাতনের শিকার হয় হাজার হাজার রোহিঙ্গা। এই সেনা নির্যাতনের মুখে ঘরবাড়ি ছেড়ে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নেয়। যুক্তরাষ্ট্র ও জাতিসংঘ একে জাতিগত নিধন উল্লেখ করলেও মিয়ানমার সেনাবাহিনী তা অস্বীকার করেছে।

‘মিয়ানমার সেনাদের মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নির্যাতনের তদন্ত, নথিবদ্ধ, সংগ্রহ, সারসংক্ষেপ, মানচিত্র তৈরি ও প্রমাণ বিশ্লেষণের জন্য একটি স্বাধীন তদন্ত কমিটি’ গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন লি ।

তিনি বলেন, ‘এই বিশাল তথ্যভান্ডারের মাধ্যমে যারা একটি জাতিগত সংখ্যালঘু ধর্মীয় গোষ্ঠী ও ব্যক্তির ওপর নির্যাতনের আদেশ দিয়েছে ও নির্যাতন চালিয়েছে তাদেরকে আন্তর্জাতিক আদালত অথবা ট্রাইব্যুনালে বিচারের মুখোমুখি করা সম্ভব হবে।’

মিয়ানমারের ক্ষমতাসীন দল ও এর নেত্রি অং সান সুচিকেও এর দায় নিতে হবে উল্লেখ করে জাতিসংঘের এই বিশেষ দূত বলেন, ‘সরকারের নেতা যিনি এই কর্মকাণ্ড বন্ধ অথবা এর নিন্দা জানাতে কিছুই করেননি তাকে এর জন্য দায়ী করতে হবে।’

রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘ্টনা তদন্তে জাতিসংঘের যে তিনজন বিশেষজ্ঞ কাজ করছেন তারাও মানবাধিকার কাউন্সিলে সুস্পষ্টভাবে এর নিন্দা জানিয়েছেন।

লি বলেন, তাদের সংগৃহীত তথ্যে সবচেয়ে গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের ইঙ্গিত দিচ্ছে, যা আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত অনুযায়ী বিচারযোগ্য অপরাধ।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ মার্চ ২০১৮/শাহেদ

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

শোডাউন ছাড়া কোনো চমক নেই এরশাদের

২০১৮-১০-২০ ৮:৫৯:২৫ পিএম

রূপসায় হেইয়ো হেইয়ো, পাড়ে করতালি

২০১৮-১০-২০ ৮:৪৮:৫৪ পিএম