প্রশংসা যখন অপমানজনক (শেষ পর্ব)

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-১৯ ১১:৩৮:৫৭ এএম
এস এম গল্প ইকবাল | রাইজিংবিডি.কম

প্রতীকী ছবি

এস এম গল্প ইকবাল : নিজের সম্পর্কে প্রশংসা শুনলে কে না খুশি হয়? কিন্তু এমন কিছু প্রশংসা আছে যা লোকের কাছে অপমানজনক মনে হবে। আপনি ভালো উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশংসা করলেও অন্যের কাছে অপমানজনক মনে হতে পারে, এমন কিছু প্রশংসা নিয়ে দুই পর্বের প্রতিবেদনের আজ থাকছে শেষ পর্ব।

* ‘তুমি এতো সুন্দর, এখনো সিঙ্গেল রয়ে গেলে কিভাবে?’

কেউ সিঙ্গেল রয়েছে, একথা সবার সামনে কিংবা বারবার তাকে মনে করিয়ে দেওয়াটা ভদ্রতার মধ্যে পড়ে না। ‘তুমি খুব সুন্দর। কিভাবে তুমি এখনো সিঙ্গেল রয়ে গেলে?’- সিঙ্গেল লোকদের এ ধরনের মন্তব্য করবেন না, কারণ এর দ্বারা বোঝানো হতে পারে যে, তারা শুধুমাত্র দুঃখী কুমার/কুমারী নয়, তাদের মধ্যে এমন কোনো ত্রুটিও আছে যে কারণে তারা এখনো সিঙ্গেল। এছাড়া কারো রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস নিয়ে মন্তব্য করা উচিত নয়, যতক্ষণ না পর্যন্ত তিনি এ বিষয়ে আলোচনা করবেন।

* ‘কালো ব্যক্তিদের প্রসঙ্গে আপনি খুব ভালো বলেছেন’

‘আপনি কালো ব্যক্তিদের প্রসঙ্গে খুব ভালো বলেছেন’, ‘আপনার গঠন মা হওয়ার জন্য খুব ভালো’,     ‘আপনি তার জন্য খুব স্মার্ট যে কখনো কলেজে যায়নি’- এ প্রকৃতির প্রশংসা প্রসঙ্গে সমাজকর্মী এবং রিলেশনশিপ থেরাপিস্ট ও কোচ ইরিনা বেকল বলেন, ‘এরকম প্রশংসার বিরক্তিকর বৈচিত্র্য আছে এবং প্রায়ক্ষেত্রে রেসিজম, সেক্সিজম অথবা সমস্যাপূর্ণ মনোভাবের সূক্ষ রূপ হিসেবে ব্যবহার করা হয়।’ অযাচিত শব্দ পরিহার করে প্রশংসা করুন, যেমন- ‘আপনি খুব ভালো বলেন’, ‘আপনি খুব ফিট’।

* ‘তুমি খুব ভালো করেছ, খুব স্মার্ট তুমি’

‘খুব ভালো করেছো, তুমি খুব স্মার্ট’- আপনার সঙ্গীর সবক্ষেত্রে এ ধরনের প্রশংসা করবেন না। এ প্রসঙ্গে বিয়ে ও পরিবার বিশেষজ্ঞ অ্যামি ম্যাকমানুস বলেন, ‘তাদের অর্জনের জন্য সকল বিষয়ে প্রশংসা ব্যাকফায়ার হতে পারে অথবা উল্টো ফল বয়ে আনতে পারে, কারণ তারা আপনার মাত্রাতিরিক্ত প্রশংসার ফলে হয়তো অর্জনটা অনুভব করতে পারবে না কিংবা অতীতে প্রশংসা করেননি এটা ভেবে ক্রুদ্ধ হতে পারে বা অস্বস্তির মতো জটিল অনুভূতির মুখে পড়তে পারে।’

* ‘আপনি অনেক সন্তানের গর্বিত পিতা/মাতা’

‘আপনি অনেক সন্তানের গর্বিত পিতা/মাতা’- এরকম মন্তব্য পিতা/মাতা ও সন্তানের কাছে অপমানজনক মনে হবে। যাদের প্রতি এ ধরনের মন্তব্য করবেন তারা ভাববে যে, আপনি তাদের রিপ্রোডাক্টিক চয়েসকে অপমান বা অবজ্ঞা করছেন এবং তারা মনে কষ্ট পাবে। এ জাতীয় মন্তব্য করা থেকে বিরত থাকুন।

* ‘তোমার সুন্দর একটি মুখ রয়েছে, তোমার বেশি করে হাসা উচিত’

‘তোমার সুন্দর একটি মুখ রয়েছে, তোমার বেশি করে হাসা উচিত’- এ প্রকৃতির প্রশংসার মানে হচ্ছে আপনি কাউকে হাসার জন্য চাপ দিচ্ছেন, যা আসলে শোভনীয় নয়। আপনি ফুরফুরে মেজাজে আছেন বলে জোর করে অন্যের খারাপ মেজাজকে প্রফুল্ল মেজাজে রূপান্তর করতে পারবেন না। প্রায়ক্ষেত্রে পুরুষরা নারীদেরকে এ ধরনের কথা বলে থাকে, যার ব্যাখ্যা হচ্ছে- নারীরা সবসময় কমনীয় ও অমায়িক হয়ে পুরুষদেরকে সন্তুষ্ট করছে না। তাই বলে আপনি জোর করে তাদেরকে কমনীয় ও অমায়িক বানাতে পারবেন না। কাউকে হাসাতে চান? তাহলে তাদেরকে খাঁটি প্রশংসা করুন অথবা কৌতুক বলুন।

* ‘আপনি অনেক ওজন কমিয়েছেন, আপনাকে আর মোটা দেখাচ্ছে না’

‘ওয়াও! আপনি তো অনেক ওজন কমিয়েছেন, আপনি এখন আর মোটা দেখাচ্ছে না’- এ ধরনের প্রশংসা অনেকেই পছন্দ করে না অথবা তা তাদের কাছে অপমানজনক মনে হয়। শিকাগোর মনোবিজ্ঞানী জন মুর বলেন, ‘অনেক লোকের কাছে ওজন এত বেশি সেনসিটিভ বিষয় যে আপনার কোনো ব্যক্তির গঠন ও আকার নিয়ে অযাচিত মন্তব্য করা উচিত নয়, এমনকি আপনি নিজেকে তাদের প্রতি সদয় মনে করলেও।’ যদি কেউ তার ওজন হ্রাস সম্পর্কে আপনার সঙ্গে কথা বলতে চান তাহলে এমনভাবে কথা বলুন যেন তিনি অপমানবোধ না করেন।

পড়ুন : প্রশংসা যখন অপমানজনক (প্রথম পর্ব)

তথ্যসূত্র : রিডার্স ডাইজেস্ট



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ মার্চ ২০১৮/ফিরোজ

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

রোনালদোর পাশে জুভেন্টাস সভাপতি

২০১৮-০৯-২১ ৪:৪২:১২ পিএম

বিরাটের বড় পর্দায় অভিষেক?

২০১৮-০৯-২১ ৪:৩৩:১৪ পিএম

‘ইন্দ্র দা খুবই হেল্পফুল’

২০১৮-০৯-২১ ৩:৪৬:৫৪ পিএম