আধুনিক বাংলা কবিতার বরপুত্র’র জন্মদিন আজ

প্রকাশ: ২০১৮-১০-২৩ ১০:১৫:১৩ এএম
শাহ মতিন টিপু | রাইজিংবিডি.কম

শাহ মতিন টিপু: আধুনিক বাংলা কবিতার বরপুত্র শামসুর রাহমানের ৯০তম জন্মদিন আজ। তিনি ১৯২৯ সালের ২৩ অক্টোবর পুরনো ঢাকার মাহুতটুলিতে জন্মগ্রহণ করেন।

তিনি ছিলেন জনতার কবি। স্বাধীনতার কবি। বাংলা সাহিত্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ কবি। অপশক্তি আর অনাচারের বিরুদ্ধে তিনি জবাব দিতেন কবিতার ভাষায়। একাধারে কবি, সাংবাদিক, গীতিকার ও কলামিস্ট। দীর্ঘ ছয় দশকের লেখালেখিতে তিনি বাংলা সাহিত্যে অসাধারণ অবদান রাখেন।

আক্ষরিক অর্থে তিনি বাংলা সাহিত্যের নাগরিক-কবি। প্রথম কাব্যগ্রন্থ প্রথম গান ‘দ্বিতীয় মৃত্যুর আগে’ (১৯৫৯)। এখানে তার ভাবনার মূলে রয়েছে ঢাকার বস্তি-গ্রাম-নগরের মিশ্র জনপদ। নাগরিক জীবনের ক্লান্তি, ব্যর্থতা, শোভাহীনতা, নিঃসঙ্গতাকে ধারণ করেছেন এই কাব্যগ্রন্থের অনেক স্তবকে।

দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘রৌদ্র করোটিতে’। এ কাব্যগ্রন্থেও ঢাকা ও ঢাকার পারিপার্শ্বিক জগৎকেই খুঁজে পাওয়া যায়। তিনি স্বতন্ত্র এক কাব্যমেজাজ এবং কাব্যভঙ্গি আয়ত্ত করেছিলেন।

তাঁর কবিতা যেন বাঙালিজাতির স্বাধীনতা চেতনার দীপ্তস্বর। তিনি লিখেছেন 'স্বাধীনতা তুমি' ও 'তোমাকে পাওয়ার জন্য হে স্বাধীনতা'। যা আজো মানুষের মুখে মুখে। লিখেছেন প্রেম, দ্রোহ ও বিশ্বজনীনতা বিষয়ে অসংখ্য চিরায়ত কবিতা। যা আজও সকল বয়সের মানুষকে উজ্জীবিত করে।

‘বিধ্বস্ত নীলিমা’, ‘নিরালোকে বসতি’, ‘নিজ বাসভূমে’, ‘বন্দি শিবির থেকে’, ‘মাতাল ঋতিক’সহ মৃত্যুর আগ পর্যন্ত প্রকাশিত হয়েছে কবির ৬০টি কবিতার বই। এ ছাড়া শিশুতোষ, গল্পগ্রন্থ, উপন্যাস- ‘অক্টোপাস’ ও ‘অদ্ভুত আঁধার’, নাটক ও কবিতাগ্রসহ অনুবাদগ্রন্থ, নির্বাচিত কলাম, নির্বাচিত কবিতার চারখন্ডসহ কবির বিভিন্ন বিষয়ে শতাধিক বই প্রকাশিত হয়েছে।

সাহিত্যে অবদানের জন্য বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার, আদমজী পুরস্কার, একুশের পদক, কলকাতা থেকে আনন্দ পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার লাভ করেন।

মৃত্যুর ৭ বছর আগে ১৯৯৯ সালের ১৮ জানুয়ারি দুর্বৃত্ত দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিলেন কবি।রাজধানীর শ্যামলীর বাড়িতে ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে আঘাত করে একদল দুর্বৃত্ত। অবশ্য গুরুতর জখম হলেও ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন তিনি। ২০০৬ সালে আবার অসুস্থ হয়ে পড়েন। ১৭ আগস্ট তিনি ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। কবির ইচ্ছানুযায়ী ঢাকাস্থ বনানী কবরস্থানে, নিজ মায়ের কবরের পাশে তাঁকে সমাহিত করা হয়। কবির গ্রামের বাড়ি নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার পাহাড়তলী গ্রামে। তিনি নগরকে ভালবেসে আজীবন, এমন কী মৃত্যুর পরেও রাজধানীতেই থেকে যান।

বাংলা একাডেমি আজ কবি শামসুর রাহমানের ৯০তম জন্মদিন পালন করছে। এ উপলক্ষে বিকেল তিনটায় কবির জীবন ও কর্মের ওপর একক বক্তৃতানুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। এতে বক্তব্য রাখবেন শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক রফিকউল্লাহ খান। একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন কবি আসাদ চৌধুরী।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ অক্টোবর ২০১৮/টিপু

   
 


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

অবসরে আগ্নেয়স্কা রাদওয়ানস্কা

২০১৮-১১-১৪ ১০:৪৯:০৮ পিএম

কবে হবে মিরাজের টেস্ট সেঞ্চুরি?

২০১৮-১১-১৪ ৯:১২:৩১ পিএম

‘নির্বাচন এক ঘণ্টাও পেছাবেন না’

২০১৮-১১-১৪ ৮:২১:৫১ পিএম