ঐক্যফ্রন্ট নেতিবাচক রাজনৈতিক ধারা সৃষ্টি করেছে : কা‌দের

প্রকাশ: ২০১৯-০২-০১ ২:৫৬:১৬ পিএম
রেজা পারভেজ | রাইজিংবিডি.কম

জ্যেষ্ঠ প্র‌তি‌বেদক : নির্বাচনে অংশগ্রহণ করা রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর আয়োজিত চায়ের আমন্ত্রণ বর্জন করার মাধ্যমে বিএন‌পি ও ঐক্যফ্রন্ট নেতিবাচক রাজনৈতিক ধারা সৃষ্টি করেছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তি‌নি বলেন, বিএনপি নেতিবাচক রাজনীতির কারণে খাদের কিনারে চলে এসেছে। তারা (বিএনপি) যদি তাদের চিরাচরিত নেতিবাচক রাজনীতির ধারা আকড়ে ধরে তাহলে তারা অন্ধকার খাতে নিপতিত হবে।

‘‘প্রধানমন্ত্রী যে চা চক্রের আয়োজন করেছেন, বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট সেখানে খোলামেলা আলাপ করতে পারে। বিএনপি প্রধানমন্ত্রীর চা চক্রের আহ্বান বর্জন করেছে, এটা তাদের নেতিবাচক রাজনীতির ধারা।’’

বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টকে সংসদে গিয়ে আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানি‌য়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘‘সংসদের ভেতর-বাহির দুই ক্ষেত্রে আন্দোলন করা যায়। তারা সংসদে গেলে বিরোধীকণ্ঠ উচ্চারিত হবে। বিএনপি-ঐক্যফ্রন্টের আট জন সদস্য সংসদে গিয়ে জোরালো ভাষায় কথা বলে যুক্তিতর্ক দিয়ে আন্দোলন গড়ে তুলতে পারবে।’’

সংসদ বর্জন করা রাজ‌নৈ‌তিক দলের জন্য ক্ষতিকর উল্লেখ ক‌রে মন্ত্রী ব‌লেন, ‘'নির্বাচনে জয়-পরাজয় আছে, রাজনীতিতে জোয়ার-ভাটা আছে। নির্বাচনোত্তর যে পরিস্থিতি, সংসদ বর্জনের অগণতান্ত্রিক মানসিকতার প্রকাশ ঘটায়, সেটা গণতন্ত্রের জন্য শুভ নয়, তাদের নিজের অস্তিত্বের জন্য ক্ষতিকর।’’

ওবায়দুল কা‌দের বলেন, ‘‘১০ বছরে বার বার চেষ্টা করেও বিএনপি জনগণের সাড়া জাগানোর মতো আন্দোলন গড়ে তুলতে পারেনি। নির্বাচনের পর কোনো বস্তুগত পরিস্থিতি বিরাজ করছে না যে, অবজেক্টিভ কন্ডিশন তাদের আন্দোলনে সাফল্য এনে দিতে পারে। তারা আন্দোলনের ডাক দিতে পারে, পিপলস যদি রেসপন্স না করে সাফল্য আসবে না।

‘‘এই নির্বাচনের পর বিশ্বের উন্নত গণতান্ত্রিক দেশ সরকারকে অভিনন্দন জানিয়েছে। এমনকি জাতিসংঘ সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করার জন্য চিঠি দিয়ে অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছে। বিএনপি যদি এ অবস্থায় সংসদ বর্জনের সংস্কৃতি আকড়ে ধরে তাহলে তারা আরো বড় ভুল করবে।’’

ডাকসু নির্বাচন নি‌য়ে ছাত্রলীগের প্রাক্তন এই সভাপতি বলেন, অতীতে ডাকসু নির্বাচনের ভোটকেন্দ্র ছিল হলগুলোতে। এ নিয়ে বিতর্কের কিছু নেই। ডাকসু নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে। শিক্ষার্থীরা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবে।



রাই‌জিংবি‌ডি/ঢাকা/১ ফেব্রুয়া‌রি ২০১৯/‌রেজা/বকুল

   


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

হতাশ হবেন না, নেতা-কর্মীদের ফখরুল

২০১৯-০৪-১৯ ৪:২৯:২৮ পিএম

বিতর্কের জবাব দিলেন অজয়

২০১৯-০৪-১৯ ৪:১৮:৩০ পিএম

নুসরাত হত্যার তদন্তে সিআইডি

২০১৯-০৪-১৯ ২:৫০:৫৫ পিএম

ফিরলেন তাসকিন, পেলেন ৪ উইকেট

২০১৯-০৪-১৯ ১:০৬:৫০ পিএম