গুড়ের যত উপকার

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-০৪ ৫:১৯:৪১ পিএম
আহমেদ শরীফ | রাইজিংবিডি.কম

আহমেদ শরীফ: শীতের দাপট কমে গেছে। তবে পিঠা খাওয়ার ধুম কিন্তু কমেনি। বিভিন্ন পিঠা তৈরিতে গুড় জরুরি এক উপকরণ। গুড় বিভিন্নভাবে এমনকি চায়ের সাথেও খাওয়া হচ্ছে এখন। কেউ কেউ চিনির বিকল্প হিসেবেও গুড় খান। বিশেষ করে আখের রস থেকে তৈরি গুড় স্বাস্থ্যের জন্য বেশ উপকারী। চলুন জেনে নেই গুড়ের আরো কিছু উপকারিতার কথা।

*শরীরে হজম সহায়ক এনজাইম উদ্দীপ্ত করে হজমে সহায়তা করে গুড়। এতে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়।

* লিভার থেকে ক্ষতিকর টক্সিন দূর করে লিভার পরিষ্কার রাখতে গুড় উপকারী ভূমিকা পালন করে। শরীর থেকে ক্ষতিকর উপাদান দূর করতে চাইলে পরিমাণ মতো গুড় খান।

* কফ, ঠান্ডা, ফ্লু থেকে দূরে থাকতে গুড় খেতে পারেন। কুসুম গরম পানিতে গুড় মিশিয়ে পান করুন। চায়ের সাথে চিনি না মিশিয়ে গুড় মিশিয়ে পান করুন। এতে ঠান্ডার সমস্যা থেকে রক্ষা পেতে পারেন।

* গুড়ের বড় একটি উপকারিতা হলো এটি রক্ত পরিষ্কার করে। রক্তে হিমোগ্লোবিন বাড়াতে সহায়তা করে। নিয়মিত অল্প পরিমাণে গুড় খেলে রক্ত পরিষ্কার হয়। গুড়ে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও জিংক, সেলেনিয়ামের মতো মিনারেল আছে। তাই শরীরে ক্ষত দ্রুত সারাতেও গুড় ভূমিকা রাখে।

*বিভিন্ন ফ্যাক্টরি বা কয়লাখনিতে বায়ুদূষণ হয় এমন এলাকার শ্রমিকদের জন্য গুড় খাওয়ার পরামর্শ দেন ডাক্তাররা।

* রজঃস্রাবজনিত জটিলতা, পিরিয়ডের আগে পেট ব্যথা দূর করতে নারীরা গুড় খেতে পারেন।কেননা গুড়ে আয়রন থাকে। রক্ত শূন্যতা কমায়। পাকস্থলীর জন্যও গুড় উপকারী। তাপমাত্রা সঠিক রেখে পাকস্থলীকে সুস্থ  রাখে গুড়।

* গুড়ে পটাশিয়াম থাকে, যা শরীরে এসিডের পরিমাণ ঠিক রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এতে করে শরীরের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে। নিয়মিত গুড় খেলে শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত রোগ অ্যাজমা, ব্রঙ্কাইটিস দূর হয়। চিনি খেলে কিছুক্ষণ পর শক্তি অনুভব হয়, তবে তা ক্ষতিকর। অন্যদিকে, গুড় ধীরে ধীরে শরীরে শক্তি যোগায় এবং সে শক্তি অনেকক্ষণ থাকে। ক্লান্তি ও দুর্বলতা কমায় গুড়।

* গুড় মস্তিষ্কের জন্যেও উপকারী। এছাড়াও মাংসপেশীসহ শরীর গঠনে সহায়তা করে গুড়। এটি ত্বক উজ্জ্বল রাখে, ব্রণ দূর করে। হেঁচকি উঠলে গুড় খেতে পারেন, উপকার পাবেন। পুরুষদের প্রস্রাবের সমস্যা দূর করে গুড়। শীতে গরুসহ গবাদিপশুদের শরীর গরম রাখতে গুড় খাওয়ানো হয়। গবাদিপশুর দুধ উৎপাদন বাড়াতে সাহায্য করে গুড়।

সতর্কতা: গুড় বেশি খাওয়া ঠিক না। পরিমাণমতো খেতে হবে। দীর্ঘদিন গুড় খেলে অন্ত্রে ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা থাকে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৪ মার্চ ২০১৮/তারা

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

শোডাউন ছাড়া কোনো চমক নেই এরশাদের

২০১৮-১০-২০ ৮:৫৯:২৫ পিএম

রূপসায় হেইয়ো হেইয়ো, পাড়ে করতালি

২০১৮-১০-২০ ৮:৪৮:৫৪ পিএম