ভার্চুয়াল রিয়েলিটিতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ

প্রকাশ: ২০১৭-১২-১১ ১০:৩৭:৪৭ পিএম
মনিরুল হক ফিরোজ | রাইজিংবিডি.কম

বিজ্ঞান-প্রযক্তি ডেস্ক : সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ মেলায় অন্যতম একটি চমক- আইসিটি বিভাগের সহযোগিতায় রাইজ আপ ল্যাবসের বাংলাদেশের সবচেয়ে ঐতিহাসিক তাৎপর্যপূর্ণ এবং বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণের ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) অ্যাপের ডেমো সংস্করণের উদ্বোধন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ডিভাইস পড়ে এই অ্যাপটি উদ্বোধন করেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, আইসিটি সচিব সুবীর কিশোর চৌধুরী, বিসিসির নির্বাহী পরিচালক স্বপন কুমার সরকার সহ আরো অনেক অতিথি।

ভার্চুয়াল রিয়েলিটি অ্যাপটি ভিআর ডিভাইসে চালু করা হলে, ব্যবহারকারী তার সামনে তৎকালীন ঢাকা রেসকোর্স ময়দানে ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণটি দেখতে পাবে। এই অ্যাপের মাধ্যমে ব্যবহারকারী বাঙালির স্বাধীনতার সেই তাৎপর্যপূর্ণ দিনের প্রকৃত ইতিহাস প্রত্যক্ষভাবে দেখতে, শুনতে এবং জানতে পারবে। দেশের জনগণ খুব কাছ থেকে দেখতে পাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের সেই ঐতিহাসিক ভাষণ।

অ্যাপটি ব্যবহার করে ব্যবহারকারী জাতির পিতার ৭ মার্চের ভাষণ এবং আমাদের মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা অর্জনে এই মহান ভাষণের মর্যাদা সম্পর্কে বিস্তর জ্ঞান অর্জন করতে পারবে।

ভার্চুয়াল রিয়েলিটিতে জাতির পিতার ভাষণ দেখাকালীন সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক রাইজ আপ ল্যাবসকে জানান, সঠিকভাবে এই অ্যাপের উন্নয়ন করা হলে আমাদের স্বাধীনতার ইতিহাসকে আর কেউ বিকৃত করতে পারবে না এবং আরো সহজে জনগণের কাছে পৌঁছে দেয়া যাবে।



ডেমো সংস্করণের ভার্চুয়াল রিয়েলিটি অ্যাপটি শুধুমাত্র ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড ২০১৭’ মেলায় এক্সক্লুসিভ ভাবে উদ্বোধন এবং প্রদর্শন করা হয়। অ্যাপটিতে আমাদের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের সংক্ষিপ্ত মুহূর্ত থাকলেও ব্যবহারকারীরা ওই দিনটির প্রকৃত অনুভূতি অনুভব করতে সক্ষম হয়েছেন। ৪ দিনব্যাপী ইভেন্টে শিশু থেকে শুরু করে বৃদ্ধ পর্যন্ত- সব বয়সি প্রায় আড়াই হাজার মানুষ অ্যাপটি উপভোগ করেন।

উপভোগকালীন সময় কেউ কেউ ৭ মার্চের সেই ভাষণে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে বঙ্গবন্ধুর ন্যায় তর্জনী দেখিয়ে উত্তেজনায় বলে উঠেন ‘জয় বাংলা’। অনেক শিশু অ্যাপটি দেখাকালীন সময় চিৎকার দিয়ে তার বাবা-মাকে সম্বোধন করে বলে, ‘মা ওই যে আমাদের বঙ্গবন্ধু।’ আবার কিছু শিশু দেখা শেষে বলে, ‘আমিও বঙ্গবন্ধু হতে চাই!’

আইসিটি বিভাগের সহযোগিতায় রাইজ আপ ল্যাবস এই অ্যাপটি নির্মাণ করছে। এর সম্পূর্ণ সংস্করণ আগামী ৭ মার্চ ২০১৮ সালে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) এবং অগমেন্টেড রিয়েলিটি (এআর)-এর জন্য একসঙ্গে উন্মুক্ত করা হবে। এর সম্পূর্ণ সংস্করণে ৭ মার্চের ভাষণের একটি সংক্ষিপ্ত এবং একটি বর্ধিত অংশ থাকবে, যার সংক্ষিপ্ত অংশে ভাষণের গুরুত্বপূর্ণ অংশবিশেষ এবং বর্ধিত অংশে সম্পূর্ণ ভাষণটি দেখা যাবে।

রাইজ আপ ল্যাবসের প্রতিষ্ঠাতা ও নির্বাহী কর্মকর্তা এরশাদুল হক জানান, অ্যাপটির সম্পূর্ণ সংস্করণে ৭ মার্চের ভাষণটি (অডিও) বাংলায় এবং কথার সঙ্গে ইংরেজি সাবটাইটেল থাকবে, ব্যবহারকারীরা তাদের ফেসবুকের মাধ্যমে অ্যাপে লগ-ইন করে তাদের বন্ধুদের দেখতে সক্ষম হবে, সর্বোপরি এর বর্ধিত অংশটি অ্যাপটিকে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের একটি আইসিটি আর্কাইভে পরিণত করবে। তিনি আরো জানান, বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের এই ভার্চুয়াল রিয়েলিটি অ্যাপটি মোবাইলের অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস স্টোরে এবং কম্পিউটারের অকুলাস রিফট ভিআর স্টোর এবং স্টিম স্টোরে উন্মুক্ত করা হবে এবং এর অগমেন্টেড রিয়েলিটি অ্যাপটি থাকবে অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস স্টোরে, যার ফলে পুরো পৃথিবীর মানুষ নতুন প্রযুক্তির মাধ্যমে নতুনভাবে জানবে ৭ মার্চের ভাষণের মর্যাদা এবং ইতিহাস।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ ডিসেম্বর ২০১৭/ফিরোজ

   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

ব্যাংক কোম্পানি বিল পাস

ব্যাংক কোম্পানি বিল পাস

২০১৮-০১-১৬ ৯:০০:৪৩ পিএম