বেসিসের উন্নয়নে আবারো কাজ করার সুযোগ চাই: ফারুক

প্রকাশ: ২০১৮-০৩-১০ ১:৫৯:৫৬ পিএম
মনিরুল হক ফিরোজ | রাইজিংবিডি.কম

দেলোয়ার হোসেন ফারুক

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : আগামী ৩১ মার্চ দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বাণিজ্য সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেসের (বেসিস) নির্বাহী কমিটির ২০১৮-২০২০ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের এই হাওয়ায় অনেকেই নেমেছেন প্রচার-প্রচারণায়। বেসিসের এবারের নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন রেডিসন ডিজিটাল টেকনোলজিস লিমিটেডের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন ফারুক।

বেসিসের নির্বাচন প্রার্থী হওয়া সম্পর্কে তিনি বলেন, যতটুকু সময় পেয়েছি সে সময়ে মনমতো কাজ করতে পারিনি। তাই এবারের নির্বাচনে বেসিসের উন্নয়নে কাজ করার আবারো সুযোগ চাই। সে সুযোগ তৈরি করে দেবেন বেসিস সম্মানিত সদস্যরা। যাদের ভালোবাসা আর মূল্যবান ভোট আমাকে তাদের পাশে থাকার সুযোগ দেবে।

তিনি আরো বলেন, বেসিস তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সবচেয়ে সুপ্রতিষ্ঠিত সংগঠন। বেসিস নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি অঙ্গন সংশ্লিষ্টদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষেরও আগ্রহ অনেক। বেসিস তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরকারের সঙ্গে কাজ করছে। বেসিস হচ্ছে দেশিয় সফটওয়্যার, ই-কমার্স এবং তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক সেবা (আইটিএস) খাতের প্রতিনিধিত্বকারী একমাত্র সংগঠন আর ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সফটওয়্যার, ই-কমার্স এবং আইটিএস খাতের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। এই খাতে বিশ্বজুড়ে হাজার হাজার কোটি টাকার বাজার তৈরি হয়েছে। দেশে ভালো মানের সফটওয়্যার নির্মাতাদের যদি প্রমোট করা যায় তবে গার্মেন্টসের পরেই বৈদেশিক মুদ্রা আহরণে অন্যতম খাত হতে পারে এটি। এছাড়া ই-কমার্সেও আমাদের দারুণ সম্ভাবনা রয়েছে। একইভাবে আইটিএস খাতের কথাও উল্লেখ করা যেতে পেরে আর এই তিনটি সম্ভাবনাময় খাতের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন হচ্ছে বেসিস। ফলে এই শিল্পের উন্নয়নে কাজ করতে হলে বেসিসই হতে পারে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য। এই লক্ষ্য পূরণেই আমি এবারো বেসিস নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি।

দেলোয়ার হোসেন ফারুক বলেন, আমি আশাবাদী ভালো কিছু করা সম্ভব। কারণ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে ‘ভিশন ২০২১’ ঘোষণার পর আমরা দেখতে পাচ্ছি কত দ্রুত বাংলাদেশ এগিয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে আমাদের অগ্রগতি ঈর্ষণীয়। সব মিলিয়ে বেসিস নিয়ে কাজ করতে পারলে আরো এগিয়ে যাওয়া সম্ভব।

দেলোয়ার হোসেন ফারুক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স শেষ করে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবসাকে বেছে নেন। তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ফারুকের পথচলা প্রায় ১৪ বছর। প্রফেশনাল জীবনে তিনি রেডিসন ডিজিটাল টেকনোলজিস লিমিটেড ও সফট পার্ক নামের দুটি আইটি প্রতিষ্ঠানের মালিক। তার প্রতিষ্ঠান ইআরপি, হাসপাতাল ম্যানেজমেন্ট, স্কুল ম্যানেজমেন্টসহ বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার নিয়ে কাজ করে। এছাড়া তিনি ‘আমাদের কাগজ’ নামের একটি দৈনিক পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা। ফারুক ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গেও জড়িত। তিনি লাকসামে আতাকরা হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং কুমিল্লায় একটি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করার মাধ্যমে স্থানীয় তরুণ যুবকদের আইটি শিক্ষায় শিক্ষিত করার ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রেখেছেন। তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বেসিসের পরিচালক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া পরিবর্তন ফাউন্ডেশন নামের একটি এনজিওর মাধ্যমে বিভিন্ন সেবামূলক কর্মকাণ্ডে যুক্ত আছেন তিনি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১০ মার্চ ২০১৮/ফিরোজ

   
 



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

বার্সার রেকর্ড রাজস্ব আয়

২০১৮-০৭-১৭ ৫:০২:১১ পিএম

যে ৮ বিষয় গুগলে খুঁজবেন না

২০১৮-০৭-১৭ ৪:৪৩:৫২ পিএম

শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে ‘সুলতান’

২০১৮-০৭-১৭ ৪:০৩:৪৬ পিএম