ব্যাটিং ব্যর্থতায় মেয়েদের আরেকটি হার

প্রকাশ: ২০১৮-১১-১৩ ৯:০২:৫৩ এএম
আবু হোসেন পরাগ | রাইজিংবিডি.কম

ক্রীড়া প্রতিবেদক : আগের ম্যাচে ব্যাটিং ছিল লক্ষ্য তাড়ায়। এবার আগে ব্যাটিং। ছিল না লক্ষ্য তাড়ার কোনো চাপ। কিন্তু গল্পটা আগের মতোই। ব্যাটিং ব্যর্থতায় মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আরেকটি হার সঙ্গী হলো বাংলাদেশের।

সেন্ট লুসিয়ায় বাংলাদেশ সময় সোমবার রাত ২টায় শুরু নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে ইংল্যান্ডের কাছে ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে ৭ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ।

প্রথম ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ও স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১০৭ রান তাড়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সর্বনিম্ন ৪৬ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। ম্যাচ হেরেছিল ৬০ রানে।

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টস হেরে আগে ব্যাটিং পেয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ৭৬ রানের বেশি করতে পারেনি বাংলাদেশ। যার অর্ধেকেরও বেশি রান একজনের! বাকিরা যোগ দিয়েছিলেন উইকেট পতনের মিছিলে।



ওপেনার আয়েশা রহমান যা একটু লড়েছেন। ১৩তম ওভারে দলীয় ৪২ রানে আয়েশা যখন চতুর্থ ব্যাটার হিসেবে ফিরলেন, তার একার রানই ৩৯! ৫২ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান তিনি। তার আগে আউট হওয়া শামিমা সুলতানা, ফারজানা হক ও নিগার সুলতানা রানের খাতাই খুলতে পারেননি।

বাংলাদেশের প্রাপ্তি একটাই যে অলআউট হয়নি! পরের ব্যাটারদের মধ্যে দুই অঙ্ক ছুঁয়েছেন শুধু দুজন। রুমানা আহমেদ ১০ ও জাহানারা আলম করেন ১২ রান।

৪ ওভারে ১৬ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ডের সেরা বোলার অভিষিক্ত বাঁহাতি স্পিনার ক্রিস্টিয়ে গর্ডন। চারজন পেয়েছেন একটি করে উইকেট।

স্বল্প পুঁজি নিয়ে বোলিংয়ের শুরুটা অবশ্য ভালোই হয়েছিল বাংলাদেশের। অধিনায়ক সালমা খাতুন ইনিংসের প্রথম বলেই এলবিডব্লিউ করেন ড্যানিয়েল ওয়াটকে। নিজের পরের ওভারে এসে আরেক ওপেনার তামি বিউমন্টকেও ফেরান সালমা।



তখন ১৩ রানেই ২ উইকেট নেই ইংল্যান্ডের। স্কোরটা হয়ে যেতে পারত ৩ উইকেটে ১৬! চতুর্থ ওভারে রুমানা আহমেদের বল আকাশে তুলেছিলেন অ্যামি জোন্স। খানিকটা দৌড়ে গিয়ে কঠিন ক্যাচটা নিতে পারেননি উইকেটকিপার শামিমা। কিছুটা আঘাতপ্রাপ্তও হন তিনি।

জীবন পেয়ে তৃতীয় উইকেটে ন্যাটালি সিভারের সঙ্গে ৩৮ রানের জুটি গড়ে ইংল্যান্ডকে এগিয়ে নেন জোন্স। সিভারকে ফিরিয়ে এ জুটি ভাঙেন খাদিজা তুল কুবরা।

৯ ওভার শেষে ইংল্যান্ডের স্কোর যখন ৩ উইকেটে ৫৫, তখন নামে বৃষ্টি। দীর্ঘক্ষণ পর খেলা শুরু হলে তাদের নতুন লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৬ ওভারে ৬৪। মানে ৭ ওভারে করতে হবে ৯ রান। ইংল্যান্ডের লেগেছে মাত্র তিন বল। ২৮ রানে অপরাজিত ছিলেন জোন্স।

টানা দুই হারে শূন্য পয়েন্ট নিয়ে ‘এ’ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে আছে বাংলাদেশ। দুই ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ইংল্যান্ড। দুইয়ে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ (২ পয়েন্ট), তিনে দক্ষিণ আফ্রিকা (২ পয়েন্ট), চারে আছে শ্রীলঙ্কা (১ পয়েন্ট)।   

আগামী বৃহস্পতিবার নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। আর ১৯ নভেম্বর শেষ ম্যাচ দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১১ নভেম্বর ২০১৮/পরাগ

   
 


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

শাড়ির বন্দনায় কঙ্গনা

২০১৮-১২-১২ ৫:০০:৫৪ পিএম

‘আপন মন’

২০১৮-১২-১২ ৪:৩১:২৩ পিএম