‘শূন্য থেকে’ শুরু করতে চান তামিম

প্রকাশ: ২০১৯-০৪-২৪ ৯:৫০:০৯ পিএম
ইয়াসিন | রাইজিংবিডি.কম

ক্রীড়া প্রতিবেদক: লর্ডসে বাংলাদেশের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ান ওপেনার তামিম ইকবাল।  ২০১০ সালে লর্ডসের অনার্স বোর্ডে নাম তুলেছেন ড্যাশিং ওপেনার।  লর্ডসের পর তামিম সেঞ্চুরি করেছিলেন ওল্ড ট্রাফোর্ডেও। 

২০১০ সালের পর ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে তামিম আবার ইংল্যান্ডে ফেরেন।  ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৯৫, ভারতের বিপক্ষে ৭০ করে টুর্নামেন্ট রাঙিয়েছিলেন নিজের মতো করে।  ইংল্যান্ড কোনো সময় তামিমকে খালি হাতে ফিরতে দেয়নি।  দুই-একবার কাউন্টি ক্রিকেট খেলতে গিয়েছিলেন, সেখানেও পেয়েছেন রান।  যদি বলা হয়, তামিমের জন্য পয়মন্ত ইংল্যান্ড তাহলেও ভুল হবে না।  সেই ইংল্যান্ডেই এবার বসছে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর। 

বাংলাদেশকে তার কাঙ্খিত সাফল্য পেতে হলে তামিমকে জ্বলে উঠতে হবে।  ইংল্যান্ড কি এবারও তামিমকে দুহাত ভরে সাফল্য দেবে? তামিম জানালেন, কষ্ট করেই সাফল্য পেতে হবে।  পুরনো পারফরম্যান্স আত্মবিশ্বাস দেবে ঠিকই, কিন্তু তাকে শুরু করতে হবে শূন্য থেকেই।  মিরপুরে আজ গণমাধ্যমের সামনে হাজির হন তামিম। 

 



‘এগুলো নিয়ে আমি একটা ফোঁটাও ভাবি না যে আমি ইংল্যান্ডে ভালো করেছি।  আমার কাছে মনে হয় যে যদি আমি এগুলো ভাবি, তাহলে এটা আমাকে সাহায্য করবে না।  আমি জানি যে, আমাদের কঠিন সময় সামনে আসছে।  আরও বেশি কঠিন হবে যদি আমরা বিশ্বকাপে সফল হতে চাই।  এজন্য আমাদেরকে শূন্য থেকেই শুরু করতে হবে।  তাই কি করেছি ইংল্যান্ডের মাটিতে, সেটা নিয়ে আমি খুব বেশি ভাবি না। এটা ইতিহাস হয়ে থাকুক, সেটাই আমি চাই। একটা জিনিস আমি জানি,  আমি যদি বিশ্বকাপে সফল হতে চাই, তাহলে আমাকে প্রচন্ড কষ্ট করে এবং মাঠে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েই সেটা করতে হবে। ’ – বলেছেন তামিম।

দেশসেরা ওপেনার ইংল্যান্ডে যাবেন কোনো লক্ষ্য ছাড়া।  নির্দিষ্ট করে টার্গেট সেট আপ করতে নারাজ।  তার মতে পূর্বপরিকল্পনা কিংবা নির্দিষ্ট কিছু নিয়ে বেশি চিন্তু ব্যাকফুটে ঠেলে দিবে তাকে।

 



‘কোন টার্গেট না, কোন কিছু নিয়ে চিন্তা করছি না। কারণ আমার কাছে মনে হয় যে, আমি যখনই কোন কিছু নিয়ে বেশি ভাবি, তখন সেটা অর্জন করতে পারিনা । তাই আমি এটা নিয়ে খুব বেশি ভাবছি না। বিশ্বকাপে সেঞ্চুরি নেই আমার। এটা নিয়ে আমি কোনো চিন্তা করছি না। এই বিশ্বকাপে যদি আমি এটাই টার্গেট করে যাই যে একটা সেঞ্চুরি করতে হবে বা খুব রান করতে হবে, তাহলে আমি আসলে অপ্রয়োজনীয় চাপ নিবো আমার উপরে। আমি এটা চাই না। দল আমাকে যে রোলটা দিবে, ওই রোলটা যদি আমি ভালোভাবে পালন করি, তাহলেই সুযোগ আসবে বড় ইনিংস খেলার ‘- বলেছেন তামিম।

বিশ্বকাপে ২১টি ম্যাচ খেলেছেন তামিম। ব্যাট হাতে রান করেছেন ৪৮৩। শেষ চার বছরে ব্যাটিংয়ে সবচেয়ে বেশি আলো ছড়িয়েছেন এ ওপেনার। ৪৮ ম্যাচে তামিমের রান ২৩৩৫। রঙিন পোশাকে এ সময়ে সেঞ্চুরি পেয়েছেন ৭টি। এবার বিশ্বকাপে তামিম ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পারলে বাংলাদেশ যে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে অভাবনীয় পারফরম্যান্স করবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। 



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৪ এপ্রিল ২০১৯/ইয়াসিন

     


Walton AC

আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

আবারো বা‌লিশ নি‌য়ে বিক্ষোভ

২০১৯-০৫-২১ ২:৫০:০৭ পিএম