আত্মসাতকৃত অর্থ ফেরত, জামিন মিলল এসআই’র

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১৮ ৬:১৯:১৭ পিএম
বিলাস দাস | রাইজিংবিডি.কম

পটুয়াখালী সংবাদদাতা : পটুয়াখালীতে পুলিশে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আত্মসাতের মামলায় বাদীর পাওনা টাকা পরিশোধ করে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শামীম আকন জামিন পেতে সক্ষম হয়েছেন।

আজ বৃহস্পতিবার পটুয়াখালী সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট তারিকুজ্জামান মনিরের মধ্যস্থতায় তাদের মধ্যে মিমাংসা হয়। এ সময় বাদীর পাওনা ১৩ লাখ ৬৯ হাজার টাকার মধ্যে ১০ লাখ টাকা পরিশোধ করেন আসামিপক্ষ। বাকি টাকা শর্ত সাপেক্ষে পরিশোধ করা হবে বলে জানান বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট রুহুল আমিন রেজা।

এসআই শামীম আকন ও তার ভাই কনস্টেবল আল-আমিন আকন পুলিশে চাকরি দেয়ার কথা বলে মামলার বাদী মিলন ডাকুয়ার কাছ থেকে ১৩ লাখ ৬৯ হাজার টাকা নেন। চাকরি দিতে ব্যর্থ হলে বাদী টাকা ফেরত চান। আসামিরা তখন টালবাহানা করে সময়ক্ষেপণ করেন। পরে মিলন ডাকুয়া অভিযোগ জানালে আদালত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্তের নির্দেশ দেন। পিবিআই’র পুলিশ পরিদর্শক মতিনুর রহমান ৬ জুলাই অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে মর্মে পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

রুহুল আমিন রেজা ঘটনার বরাদ দিয়ে জানান, বাদীপক্ষের দায়ের করা মামলায় পিবিআই’র তদন্তে অর্থ আত্মসাতের বিষয়টি প্রমাণিত হয়। এরই প্রেক্ষিতে ১৫ জুলাই পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আমিরুল ইসলাম আসামি ঢাকার মোহাম্মদপুর থানায় কর্মরত পুলিশের এসআই শামীম আকন ও তার ছোট ভাই বরগুনা থানায় পুলিশ কনস্টেবল পদে কর্মরত আল আমিন আকনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন। ১৬ জুলাই ১নং আসামি আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেন। আদালত আসামির জামিন নামঞ্জুর করে জেলে পাঠায়।

দুই পক্ষের মিমাংসা হওয়ায় আজ বৃহস্পতিবার জামিনের আবেদনের ওপর শুনানিতে বাদীপক্ষ অনাপত্তি দিলে আদালত এসআই শামীম আকনের জামিন মঞ্জুর করেন।


রাইজিংবিডি/পটুয়াখালী/১৮ জুলাই ২০১৯/বিলাস দাস/বকুল


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

জামালপুরে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ

২০১৯-১১-১৮ ৪:৩৫:৩৬ পিএম

স্মৃতি-বিস্মৃতির বগালেক

২০১৯-১১-১৮ ৪:৩০:৩৩ পিএম

অমিত-লিটনের লড়াই

২০১৯-১১-১৮ ৪:১৫:৪০ পিএম

বিস্ময়কর একজন গল্পকার!

২০১৯-১১-১৮ ৪:০৩:৩৫ পিএম