পানিতে ফেলে শিশু হত্যায় ১ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশ: ২০১৯-১০-০৯ ৬:৪৩:৩২ পিএম
জেলা সংবাদদাতা | রাইজিংবিডি.কম

হবিগঞ্জে ৯ বছর বয়সী শিশু রুবেল মিয়াকে হাত-পা বেঁধে পানিতে ফেলে হত্যার দায়ে একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

বুধবার দুপুরে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এসএম নাসিম রেজা এই রায় দেন। যাবজ্জীবন রায়প্রাপ্ত আসামির নাম রায়হান মিয়া ওরফে জাবেদ রায়হান (৩১)। রায়হান রমনা থানার শিকদার বাড়ি এলাকার শাহজাহান মোল্লার ছেলে।

দণ্ডপ্রাপ্তকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো পাঁচ বছর কারাদণ্ডের আদেশ দেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় রায়হান আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আদালত পরিদর্শক মো. আল-আমিন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, হত্যাকারী রায়হান লাখাই উপজেলার ধর্মপুর গ্রামের আব্দুল হাইকে বাবা ডাকেন। এরপার থেকে আব্দুল হাইয়ের বাড়িতেই বসবাস করছিলেন। ২০০৩ সালের ৮ আগস্ট মাসে একই গ্রামের শরীফ মিয়ার ৯ বছর বয়সী ছেরে রুবেলকে মাছ ধরার কথা বলে নৌকায় করে পার্শ্ববর্তী হাওরে নিয়ে যান। সেখানে ছেলেটিকে জোরপূর্বক বলৎকারের চেষ্টা চালান।

শিশু রুবেল চিৎকার শুরু করলে ক্ষিপ্ত হয়ে তার হাত-পা বেঁধে পানিতে ফেলে দেন রায়হান। ঘটনার ৩ দিন পর হাওরে ভাসমান অবস্থায় মরদেহটি দেখতে পায় স্থানীয়রা।

১১ আগস্ট রুবেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সেদিনই রুবেলের পিতা বাদী হয়ে রায়হানকে একমাত্র অসামি করে লাখাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পরবর্তীতে ২০০৫ সালের ৫ অক্টোবর লাখাই থানার তৎকালীন উপ পরিদর্শক (এসআই) শাহজাহান মিয়া আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। হত্যাকাণ্ডের দীর্ঘ ১৬ বছর পর ১১ জনের স্বাক্ষী গ্রহণ শেষে আদালত রায় ঘোষণা করেছেন।

হবিগঞ্জের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আব্দুল আহাদ ফারুক জানান, রায় ঘোষণার পর রুবেলের পরিবার সন্তোষ প্রকাশ করেছে।



হবিগঞ্জ/মামুন চৌধুরী/সনি


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

দুলকার খুব সংসারী: নিথিয়া মেনন

২০২০-০৭-১১ ১২:১৯:০০ এএম

‘বিশ্বের হুমকি এখন করোনা নয়’

২০২০-০৭-১০ ৯:৫১:৪৩ পিএম

জবি শিক্ষার্থীদের পাশে ছাত্রলীগ

২০২০-০৭-১০ ৯:৩৬:৪২ পিএম

ভয়ংকর রূপে ফুঁসছে তিস্তা

২০২০-০৭-১০ ৯:২৪:৩১ পিএম