যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তদন্তে কমিটি গঠন

প্রকাশ: ২০১৯-১১-১৮ ৬:০৪:০৮ পিএম
গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি | রাইজিংবিডি.কম

অভিযুক্ত শিক্ষক হুমায়ুন কবির

গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এক বিদেশি (নেপালি) শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো. হুমায়ূন কবিরের সহকারী প্রক্টরের পদ স্থগিত করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. নূরউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ আদেশ দেয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। যৌন নিপীড়ন প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে নেপালি শিক্ষার্থীরা।

ওই চিঠিতে বলা হয়, গত ১৩ নভেম্বর হুমায়ূন কবিরের বিরুদ্ধে এক বিদেশি ছাত্রী যৌন নিপীড়নের অভিযোগ করেন। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিব্রত বোধ করছে। বর্তমানে বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ সেল তদন্ত করছে। বিষয়টি সুরাহা না হওয়া পর্যন্ত ন্যায় বিচারের স্বার্থে তার সহকারী প্রক্টর পদটি স্থগিত করা হয়েছে।

ওই আদেশে হুমায়ূন কবিরকে এ ব্যাপারে আগামী সাত কর্ম দিবসের মধ্যে রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে লিখিত বক্তব্য দেয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. নূরউদ্দিন আহমেদ বলেন, ভারপ্রাপ্ত উপাচার্যের অনুমোদনক্রমে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো. হুমায়ূন কবিরের সহকারী প্রক্টরের পদ স্থগিত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে হুমায়ূন কবির বলেন, ওই শিক্ষার্থী তার বিরুদ্ধে মিথ্যা, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও ষড়যন্ত্রমূলক যৌন নিপীড়নের অভিযোগ করেছেন।

এ ঘটনায় যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ সেলের প্রধান ও আইন বিভাগের শিক্ষক মানসুরা খানমকে প্রধান করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তাদের আগামী পাঁচ কর্ম দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

এদিকে, হুমায়ূন কবিরকে শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছেন নেপালি শিক্ষার্থীরা।

সোমবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে প্রায় ঘণ্টাব্যাপি মানববন্ধন চলাকালে আন্দোলনকারীরা ব্যানার ও বিভিন্ন প্লাকার্ড বহন করেন এবং অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের শাস্তির দাবি জানান।


গোপালগঞ্জ/বাদল সাহা/বকুল


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

পুলিশ ও সাইফের অঘোষিত ফাইনাল

২০১৯-১২-১৪ ৯:১৪:৫৫ পিএম

সামনে শুধুই অন্ধকার

২০১৯-১২-১৪ ৯:০৯:০৯ পিএম

দল জেতার পরও হতাশ মাহমুদউল্লাহ!

২০১৯-১২-১৪ ৮:৫৩:৩১ পিএম

দেশে বিপুল সম্বর্ধনা সু চির

২০১৯-১২-১৪ ৮:৩৯:২৯ পিএম