দুর্ঘটনায় মারা গেলেন ইবি শিক্ষার্থী

প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৬ ১২:৫৫:০৩ পিএম
বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা | রাইজিংবিডি.কম

চালকের আসনে বসে শ্যালো ইঞ্জিনচালিত আলমসাধু গাড়ি চালাচ্ছিলেন বাবা। গাড়িতে তার দুই ছেলে ও এক ভাতিজা। পথে গাড়ি উল্টে মারা গেলেন তার বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছেলে।

বুধবার (২৫ আগস্ট) মধ্যরাতে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় ঘটেছে মর্মান্তিক এ ঘটনা। উপজেলার পূর্ব টুনিয়াপাড়া গ্রামের চেয়ারম্যান মোড়ে এ দুর্ঘটনা হয়। এতে নিহত হন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) আইন বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সিহাব আহমেদ। এসময় গাড়ি চালাচ্ছিলেন তার বাবা টুনিয়াপাড়া গ্রামের মনোয়ার হোসেন।

জানা যায়, শিহাবের বাবা কাঠের গুঁড়ার ব্যবসায়ী। নিজেদের শ্যালো ইঞ্জিন আলমসাধু গাড়িতে করে কাঠের গুঁড়া নিয়ে মধ্যরাতে বাবার সাথে বাড়ি ফিরছিলেন শিহাব, ছোট ভাই সজিব এবং আরেক চাচতো ভাই। পথে নিজ গ্রাম পূর্ব টুনিয়াপাড়ার চেয়ারম্যান মোড়ে আসলে সামনে বিড়াল দেখে গাড়ি ব্রেক করে শিহাবের বাবা। তাৎক্ষণিক গাড়ি উল্টে গেলে আপন দুই ভাই গাড়ির নিচে চাপা পড়েন। পরে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান সিহাব। তবে, দুর্ঘটনায় গাড়িতে থাকা অন্যরা সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আজ দুপুরে নিজ গ্রাম পূর্ব টুনিয়াপাড়া জামে মসজিদে তার নামাজে জানাযা হবে। পূর্ব টুনিয়াপাড়া কেন্দ্রীয় কবরস্থানে দাফন করা হবে বলেও জানা যায়।

এদিকে শিহাবের মৃত্যুতে তার পরিবার, এলাকাবাসী এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধু ও শিক্ষকদের মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। আইন বিভাগের শিক্ষক সহযোগী অধ্যাপক আনিচুর রহমান নিহত শিহাব সম্পর্কে বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগতভাবে সিহাবকে চিনতাম। ও খুব ভদ্র, বিনয়ী ও মেধাবী ছিল। তার এ অকাল মৃত্যু খুবই দুঃখজনক। আমরা অপার সম্ভাবনাময়ী এক মেধাবী শিক্ষার্থীকে হারালাম।’

 

ইবি/নাহিদ/মাহি


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

মানবিক ওসি

২০২০-০৪-০৫ ১২:১৮:৫৯ এএম