২০২০-২১ অর্থবছরের প্রাক-বাজেট আলোচনা অনিশ্চিত

প্রকাশ: ২০২০-০৩-৩০ ৩:৩৫:৪৭ এএম
কেএমএ হাসনাত | রাইজিংবিডি.কম

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে সরকারের ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট প্রণয়নের প্রাক-বাজেট আলোচনা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

সোমবার ( ৩০ মার্চ) বাজেট সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতিদের সঙ্গে বৈঠক হওয়ার কথা থাকলেও সেটি বাতিল করা হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

নতুন অর্থবছরের বাজেট প্রণয়নের আগে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থবিভাগ এবং অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগ (আইআরডি) বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে পৃথকভাবে প্রাক-বাজেট আলোচনায় বসে। অন্যান্য বছরের মতো এবারও তেমনটি শুরু হয়েছিল। ইতোমধ্যে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) কয়েকটি স্টেকহোল্ডাদের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা করেছে। কিন্তু অর্থবিভাগ সোমবার থেকে শুরু করা উদ্যোগ নিয়েছিল, কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে আপাতত তা স্থগিত করা হয়েছে।

অর্থ বিভাগের সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রাক-বাজেট আলোচনা শুরুর কথা ছিল সোমবার থেকে।  প্রথম আলোচনাটি নির্ধারণ করা হয়েছিল বিভিন্ন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি এবং জাতীয় সংসদে ৪টি স্থায়ী কমিটির (অর্থ মন্ত্রণালয়, পরিবল্পনা মন্ত্রণালয়, সরকারি হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি এবং সরকারি প্রতিষ্ঠান কমিটি) সভাপতিদের সঙ্গে। এরপর আগামী ২ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) দেশের খ্যাতিমান অর্থনীতিবিদ ও পেশাজীবীদের সঙ্গে আলোচনা করার সব প্রস্তুতি ছিল।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের দৈনিক কর্মসূচিতেও তা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। কিন্ত শেষ পর্যন্ত উদ্ভূত পরিস্থিতির কারণে কর্মসূচিগুলো বাতিল করতে হয়েছে।

করোনাভাইরাসের কারণে দেশে এখন সাধারণ ছুটি (১০ দিন) চলছে। এজন্য সব সরকারি-বেসরকারি অফিসসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গত বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এ অবস্থায় প্রাক-বাজেট আলোচনা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

অর্থবিভাগের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করা শর্তে বলেন, নতুন অর্থবছরের বাজেট প্রণয়নের পাশাপাশি চলতি অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটের কাজও এ সময় হয়ে থাকে। সেটির কাজও স্থবির হয়ে পড়েছে। স্বাভাবিক সময়ে এতদিনে আমাদের সংশোধিত বাজেট চূড়ান্ত হয়ে যায়। কিন্তু দীর্ঘ ছুটির কারণে সব অফিস এখন বন্ধ।  ফলে সে কাজটিও করা সম্ভব হচ্ছে না।

এছাড়াও আগামী ৫ এপ্রিল সরকারের সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সিনিয়র সচিব এবং সচিবদের সঙ্গে বৈঠক। এছাড়া বাজেট সম্পর্কিত কো-অর্ডিনেশন কাউন্সিলের বৈঠকে হওয়ার কথা, যা বাজেট প্রণয়নে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এ বৈঠকে আগামী ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটের প্রাথমিক একটি আকার ঠিক করার কথা। কিন্তু অবস্থা যা দাঁড়াচ্ছে তাতে এ সভাটিও করা সম্ভব হবে না।

সূত্র জানায়, আনুষ্ঠানিক বৈঠক করা সম্ভব না হলেও ক্ষুদ্র পরিসরে অনলাইনে প্রাক-বাজেট আলোচনা করা যায় কিনা—সে বিষয়ে নীতি-নির্ধারকদের অনুমোদন পাওয়া গেলে তার উদ্যোগ নেওয়া হবে।  কারণ প্রাক-বাজেট আলোচনা বাজেট প্রণয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বিশেষজ্ঞদের মতামতের ভিত্তিতে সম্পদ আহরণ ও বরাদ্দের খাতগুলো নির্ধারণ করা সম্ভব হয়।

করোনার কারণে শুধু অর্থ বিভাগের প্রাক-বাজেট আলোচনাই নয়, এনবিআর-এর মাসব্যাপী প্রাক-বাজেট আলোচনাও বন্ধ হয়ে গেছে। গত ১৯ মার্চ বিকেল ৩টায় বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন ও গাড়ি ব্যবসায়ীদের সংগঠন বারবিডা প্রতিনিধিদের সঙ্গে মতবিনিময়ের মধ্যদিয়ে এ আলোচনা শুরু হয়। এরপর আর মাত্র দুটি সভা করা সম্ভব হয়েছে। তারপর প্রাক-বাজেট আলোচনা স্থগিত করা হয়। আগামী ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত এ ধরনের আলোচনা চলার কথা শিডিউল ছিল। তবে বিদ্যমান অবস্থায় সবই এখন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।


হাসনাত/সাইফ/নাসিম 


     




আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

স্বাভাবিক হতে শুরু করেছে ইতালি

২০২০-০৬-০৫ ৫:৩৯:০১ এএম

বিশ্ব পরিবেশ দিবস আজ

২০২০-০৬-০৫ ৩:৩০:৫১ এএম

স্মৃতিতে অমলিন পপ-গুরু আজম খান

২০২০-০৬-০৫ ২:৩৫:৫২ এএম

গাজী টাওয়ারের আগুন বিদ্যুৎ থেকে

২০২০-০৬-০৫ ১২:৫৩:৩৬ এএম

ফিফার দেখানো পথে হাঁটছে ইপিএল

২০২০-০৬-০৪ ১১:৪২:৪৬ পিএম