বন্দর নগরীর ‘লুকানো ফোঁড়’

প্রকাশ: ২০২০-০৫-২২ ৪:০৭:৪১ পিএম
স্টার্লিং ডি মামুন | রাইজিংবিডি.কম

নারীদের একসময় মনে করা হতো এরা শুধু রান্না, ঘর গোছানো, সন্তান উৎপাদন ও প্রতিপালন করতেই জানেন। কিন্তু আমাদের জানা ছিল না যে, তারা রান্না আর চুল বাঁধার পাশাপাশি কবি, সাহিত্যিক, ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাও হতে পারেন, আবার এমপি-মন্ত্রী হয়ে দেশ চালাতেও পালেন।

আজ থেকে দুই দশক আগেও সভ্যতা বিনির্মাণে নারী পিছিয়ে ছিল অনেক। নারীর কোমল হাত আজ স্বামী-সন্তানের পাশাপাশি সংসারের অর্থনৈতিক চাকাও সচল রাখছে। এমনই একজন নারী হলেন তরুণ উদ্যোক্তা মিছবাহুন্নিছা।

বন্দর নগরী চট্টগ্রামের লোহাগড়া উপজেলার চুনতি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। চুনতি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি। চুনতি সরকারি মহিলা কলেজ থেকে এইচএসসি এবং চট্রগ্রাম সরকারি মহিলা কলেজ থেকে অনার্স ও মাস্টার্স করেন তিনি।

মিছবাহুন্নিছার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম ‘লুকানো ফোঁড়’। নকশি পণ্য চাদর, কাথা, বেবি নিমা ইত্যাদি দেশীয় পণ্য নিয়ে কাজ করেন তিনি। উদ্যোক্তা জীবন শুরু করেন ২০১০ সালে। বেশির ভাগ পণ্যে নিজের হাতে ডিজাইন করে থাকেন।

নিজের প্রতিষ্ঠানে ১০ জন মানুষকে কর্মের সুযোগ দিয়েছেন তিনি। নিজের বাসার একটা কক্ষকেই অফিস হিসেবে ব্যবহার করে আসছেন দীর্ঘদিন। উদ্যোক্তা হয়ে ওঠার আগের গল্প ছিল ভিন্ন রকমের। বিয়ের আগে ও পরে শিক্ষক হিসেবে একটা প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন তিনি।। কিন্তু প্রথম সন্তান জন্ম নেওয়ার পর উপলব্ধি করেছেন সংসার- সন্তানের পাশাপাশি চাকরি করে যাওয়া বেজায় কষ্টসাধ্য, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নিজের স্বাধীনতা নিয়ে কাজ করা খুব কঠিন এবং বাচ্চাকে ও বেশি সময় দেওয়া যায় না। তাই চিন্তা করলেন নিজে কিছু করবেন। যেখানে নিজের ইচ্ছাকে প্রাধান্য দিতে পারা যায়, আয়ের ব্যবস্থা থাকবে, সাথে কিছু লোকের কর্মসংস্থান তৈরি হবে এই তাগিদে  উদ্যোক্তা হওয়ার সংকল্প নিয়ে কাজ শুরু করেন স্বপ্নবাজ মিছবাহুন্নিছা।

উদ্যোক্তা হিসেবে চ্যালেঞ্জ কী? এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘উদ্যোক্তা হিসেবে মূল যে চ্যালেঞ্জ, তাহলো মেয়েরা ব্যবসা বাণিজ্য করবে, তা আমাদের সমাজে ততটা গ্রহণ যোগ্যতা পায়নি। সাথে তুমি মেয়ে মানুষ, ঘর সংসার না করে কিসে পাইছে তোমাকে এসব করার? মেয়েদের দিয়ে এগুলো হয়না, নানা নেগেটিভ মন্তব্য, যা অতিক্রম করতে অনেক বেগ পেতে হয়, সাথে আছে ফান্ডিংয়ের সমস্যা। সোর্সিংয়ের ক্ষেত্রে সমস্যা তো আছেই। এগুলো অতিক্রম করা একটু কঠিন।’

ব্যবসা শুরুর প্রথম দিক বেশ কঠিন ছিল মিছবাহুন্নিছার জন্য। পারিবারিক বাঁধা, ছোট বাচ্চা নিয়ে লোকাল পরিবহনে কাঁচামাল সংগ্রহ করা, মূলধন জোগান, কর্মী ব্যবস্থাপনা করা। কিন্তু অত্যন্ত ধৈর্যের সাথে কাজ করে গিয়েছেন। সব বাঁধাকে আস্তে আস্তে সব কাটিয়ে উঠেছেন।

এখন একজন উদ্যোক্তা হিসেবে কেমন আছেন? জবাবে তিনি বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ ভালো। সবমিলিয়ে ভালো আছি। বর্তমানে দেশের বিভন্ন জায়গায় আমার তৈরি পণ্য ডেলিভারি দিচ্ছি, কাস্টমারের কাছ থেকে ভালো ফিডব্যাক পাচ্ছি। সাথে কিছু নারীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পেরেছি। এই অবস্থান আরও ভালো পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছি।’

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে বন্দর নগরীর এই স্বপ্নবাজ উদ্যোক্তা বলেন, ‘দেশের একজন সফল নারী উদ্যোক্তা হিসেবে আমার একটা প্রতিষ্ঠান থাকবে। যেখানে শুধু আমার পণ্য থাকবে এবং সেখানে সুবিধাবঞ্চিত নারীদের ফ্রি সেলাই শেখানো হবে। যাতে তারা স্বাবলম্বী হতে পারে এবং আমার পণ্য দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশে রপ্তানি হবে।’

যারা চাকরি ছেড়ে উদ্যোক্তা হতে চান, তাদের উদ্দেশে নিজের বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে তিনি বলেন, ‘আপনি যদি উদ্যোক্তা হতে চান, তবে প্রথমেই নিজেকে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করার জন্য প্রস্তুত করে নিন। বেস্ট সেলিং ‘চিকেন স্যুপ ফর দি সৌল’ সেলফ ডেভেলপমেন্ট বুক সিরিজের মূল লেখক ও সফল উদ্যোক্তা ভিক্টর হ্যানসেন বলেন, ‘বিরাট চ্যালেঞ্জ জয় করা ছাড়া অসাধারণ সাফল্য পাওয়া সম্ভব নয়’। নিজের মধ্যে উদ্ভাবন শক্তি বৃদ্ধি করতে হবে, অনুকরণ নয় অনুসরণ করতে হবে, কাজ শুরু করার আগে সেটা নিয়ে ভালো করে অধ্যয়ন করা। মাইন্ড সেট করতে হবে আমাকে দিয়ে হবেই।’

‘উদ্যোক্তা হতে হলে জীবনযাপনে পরিবর্তন আনতে হবে, অনিশ্চিয়তার মুখেও এগিয়ে যেতে হবে, কর্মী বাছাইয়ে মনোযোগী হতে হবে, মূলধনের যোগান নিশ্চিত করতে হবে, অযাচিত আড্ডা এবং ঘোরাফেরা থেকে নিজেকে দূরে রাখতে হবে’, বলেন তিনি।

লেখক: তরুণ উদ্যোক্তা।


ঢাকা/হাকিম মাহি


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

রেল কি করোনা এক্সপ্রেস ?

২০২০-০৬-০৩ ৮:০৮:২৬ এএম

জিপিএ-৫ পেয়েও কাঁদছেন তানিয়া

২০২০-০৬-০৩ ৩:৩২:৪৪ এএম

৮২ কোচ পেলেন মাশরাফির ‘উপহার’

২০২০-০৬-০৩ ১:২২:৪১ এএম

‘আমি কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে গর্বিত’

২০২০-০৬-০৩ ১২:৩২:১৬ এএম