কাচ খেয়ে ৪৫ বছর

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৮ ৮:১১:৪০ এএম
শাহিদুল ইসলাম | রাইজিংবিডি.কম

জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক সুকুমার রায় ‘খাই খাই’ ছড়ায় মানুষের বিভিন্ন খাদ্যাভ্যাসের কথা বর্ণনা করেছেন। তবে ছড়াকারের বিচিত্র সব খাদ্যাভ্যাস হার মেনেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের এক ব্যক্তির কাছে।

দয়ারাম সাহু যে জিনিসটি খান তা হলো ভাঙা কাচ। সাধারণত এটি খাওয়া তো দূরের কথা এর সংস্পর্শে এলেও দুর্ঘটনার প্রবল আশঙ্কা  থাকে। তবে আপনার আমার কাছে যা অস্বাভাবিক, দয়ারামের কাছে তা নিতান্তই স্বাভাবিক। আর এক-দুই দিন নয়, গত ৪৫ বছর ধরে তিনি এই বিপজ্জনক জিনিসটি দিব্যি খেয়ে যাচ্ছেন।

সম্প্রতি নিউজ এজেন্সি এএনআই তাদের টুইটার পেজে দয়ারাম সাহুর কাচ খাওয়ার ভিডিও দিয়েছে। এরপর তা রাতারাতি অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

দয়ারাম পেশায় আইনজীবী। এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, এই অভ্যাসটা তার কাছে আসক্তির মতো। এতে তার ক্ষতিও হয়েছে। বিশেষ করে দাঁতের অনেক ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি দাবি করেছেন। ফলে বর্তমানে তিনি কাচ খাওয়ার মাত্রা কমিয়ে এনেছেন। এছাড়া তিনি অন্যদের এই ধরনের বিপজ্জনক খাদ্যাভাস থেকে দূরে থাকার পরামর্শও দিয়েছেন।

সত্যেন্দ্র প্রসাদ ভারতের সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসক। তিনি মনে করেন, কাচ খাওয়া মানুষের জন্য অত্যন্ত বিপজ্জনক। এতে দেহের  বিভিন্ন অঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। তিনি বলেন, যেহেতু কাচ হজম করা যায় না, তাই এটি খাওয়া উচিৎ নয়। এটি যখন অ্যালিমেন্টারি ক্যানাল দিয়ে অতিক্রম করে তখন ক্ষত তৈরি করতে পারে। ফলে আলসার ও ইনফেকশন হতে পারে। এছাড়া পাকস্থলিতেও নানা সমস্যা হতে পারে।


ঢাকা/মারুফ/তারা


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

বিপ্লবের ভগ্নিপতিসহ নিখোঁজ ২

২০১৯-১০-২২ ১১:৫৭:৩০ পিএম

আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব : সাকিব

২০১৯-১০-২২ ১০:৪২:০৭ পিএম

জামালপুরের সেই সাধনা বরখাস্ত

২০১৯-১০-২২ ১০:২৩:২৯ পিএম