জিতেছে মানবতা

প্রকাশ: ২০১৯-১০-২৮ ৮:১৪:০৪ এএম
শাহিদুল ইসলাম | রাইজিংবিডি.কম

রক্তদান মহৎ কাজ। তবে কারো কারো কাছে এই কাজ আরও বেশি কিছু। তেমনি একজন ভারতের ওড়িশা রাজ্যের দিলীপ বারিক।

সম্প্রতি রক্তদান করে দিলীপ যে নজির স্থাপন করেছেন তা বিরল। কারণ তিনি প্রায় ৫০০ কিলোমিটার পাড়ি দিয়ে এক মুমূর্ষু মাকে রক্তদান করেছেন।

মুমূর্ষু ওই মায়ের নাম সবিতা। সম্প্রতি ওড়িশার ব্রহ্মপুরের এমকেসিজে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি। এসময় তার প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। ফলে জীবন বাঁচাতে রক্তের প্রয়োজন পড়ে। 

কিন্তু সবিতাকে রক্ত দিতে গিয়ে দেখা দেয় আরেক বিপত্তি। কারণ তার দেহে যে রক্ত বইছে তা আর দশটা সাধারণ মানুষের থেকে একেবারেই আলাদা। তার রক্তের গ্রুপ ‘বম্বে এ পজেটিভ’। চিকিৎসক ওয়াই এম ভিন্দে কর্তৃক ১৯৫২ সালে এই বিরল রক্তের গ্রুপ আবিষ্কৃত হয়। ১৩০ কোটি জনসংখ্যার দেশ ভারতে প্রতি আড়াই লাখ মানুষের মধ্যে মাত্র একজন এই রক্তের গ্রুপধারী।

চিন্তায় কপালে ভাঁজ পড়ে চিকিৎসকদের। স্থানীয় হাসপাতাল এবং ব্লাড ব্যাংকে রক্তের খোঁজ শুরু করেন তারা। কিন্তু ফলাফল শূন্য। অবশেষে চিকিৎসকেরা হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপে রক্ত দাতার সন্ধানে একটি পোস্ট দেন।

রক্তের অভাবে সবিতা যখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে তখনই সাড়া দেন দিলীপ। দূরত্ব তার কাছে কোন বাধা হয়নি। কারণ তার কাছে রক্তদান করে কারো জীবন বাঁচানো পরম সুখকর ও পবিত্র দায়িত্ব।

তাই এক মুহূর্ত দেরি না করে যথাসময়ে হাসপাতলে পৌঁছে যান দিলীপ। রক্ত দেন সবিতাকে। দিলীপের রক্তেই সুস্থ হয়ে উঠেছে মৃত্যুপথযাত্রী সবিতা। জিতে গেছে মানবতা।



ঢাকা/মারুফ/তারা


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

টিভিতে আজকের খেলা

২০১৯-১১-১৬ ২:২১:৪৪ এএম

সুরের মূর্ছনায় হেমন্তের রজনী

২০১৯-১১-১৬ ১:১৮:৫৭ এএম