পরিচ্ছন্নতা কর্মী হলেন পাইলট

প্রকাশ: ২০১৯-১০-৩০ ৩:১৬:০০ পিএম
শাহিদুল ইসলাম | রাইজিংবিডি.কম

আবু বকর। নাইজেরিয়ার আজমান এয়ার লাইন্সের পরিচ্ছন্নতা কর্মী। প্রতিদিন বিমান অবতরণের পর তার কাজ বিমানের অভ্যন্তরীণ ময়লা পরিষ্কার করা।

তবে দুই যুগ আগে যে বিমান সংস্থার পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে তিনি যোগ দিয়েছিলেন আজ সেই বিমানের তিনি পাইলট। কিন্তু সবার মনে একটাই প্রশ্ন— কীভাবে? কারণ পাইলট হওয়া তো মুখের কথা নয়! সরকারি খরচে পাইলট হওয়ার প্রশিক্ষণ নেন তাদের কথা আলাদা। তবে যারা বেসরকারিভাবে পাইলট হন তাদের অর্থ এবং সময় দুটোই খরচ করতে হয় দেদার।

একটি বিমান সংস্থার হিসাব মতে, বেসরকারিভাবে একজনকে পাইলট হতে হলে কমপক্ষে ১০ হাজার মার্কিন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৯ লাখ টাকা খরচ করতে হয়। এছাড়া প্রশিক্ষণার্থীকে ব্যাপক শ্রমও দিতে হয়। তবে এখানেই শেষ নয়। প্রশিক্ষণ শেষ হওয়ার পর সার্টিফিকেট পাওয়ার পূর্বে প্রশিক্ষণার্থীর লগ বুকে ৪০ ঘণ্টা উড্ডয়ন নথিবদ্ধ থাকতে হয়। অর্থাৎ মেধা, ব্যাপক অধ্যবসায় এবং অর্থ না থাকলে বেসরকারিভাবে পাইলট হওয়া একেবারেই অসম্ভব।

আবু বকরের মেধা এবং পরিশ্রমের মানসিকতা ছিল কিন্তু অর্থ ছিল না। ফলে চব্বিশ বছর আগে তিনি আজমান এয়ার লাইন্সে যোগদান করেছিলেন পরিচ্ছন্নতা কর্মী হিসেবে। এরপর নিজের সময়গুলো হিসাব করেই কাটিয়েছেন। একটু একটু করে শিখেছেন বিমান চালনার কায়দা-কানুন। একে একে পার হয়েছেন বিমান উড্ডয়নের সকল পরীক্ষা। ফলে চব্বিশ বছর পর আবুবকর আজ পাইলট।

আজমান এয়ার লাইন্স তাদের টুইটার পেজে আবু বকরকে অভিনন্দন জানিয়েছে। অভিনন্দন জানিয়েছে তার সাবেক এবং বর্তমান সহকর্মীরা। তারা আবু বকরের ঘটনাকে এয়ার লাইন্স ইতিহাসে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করেছে।


ঢাকা/মারুফ/তারা


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

সুরের মূর্ছনায় হেমন্তের রজনী

২০১৯-১১-১৬ ১:১৮:৫৭ এএম