খান ‘করোনাবার্গার’

প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৬ ১১:৫৪:২৯ এএম
আন্তর্জাতিক ডেস্ক | রাইজিংবিডি.কম

করোনাভাইরাসের থাবায় কাঁপছে গোটা বিশ্ব। আক্রান্তের সঙ্গে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। বর্তমান বিশ্বে আতঙ্কের আরেক নাম করোনাভাইরাস। পুরো বিশ্ব এক হয়ে লড়াই করছে একে রুখতে। তবে অন্য ঘটনা ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে। সেখানে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে করোনা! ‘পরাজিত করতে চাইলে খেতে হবে’- এই দর্শন নিয়ে হ্যানয়ের এক বাবুর্চি তৈরি করেছেন করোনাবার্গার।

বাবুর্চি হোয়াং টুং ও তার কর্মীরা ব্যস্ত সময় পার করছেন করোনাবার্গার বানাতে। এ বার্গার শুধু নামেই নয়, দেখতেও প্রাণঘাতী ভাইরাসটির মতো। সবুজ রঙয়ের এ বার্গার বানে রয়েছে করোনাভাইরাসের মতো মুকুট, যেমনটা দেখা যায় মাইক্রোস্কোপিক ছবিতে। করোনা নিয়ে যেখানে আতঙ্কিত প্রত্যেকে, সেখানে এমন রেসিপি কেন? টুংয়ের ব্যাখ্যা, ‘আমাদের মাথায় এই মজার ব্যাপার এলো। যদি আপনি কোনো কিছু নিয়ে ভয়ে থাকেন, তবে আপনার সেটা খাওয়া উচিত।’

পুরো বিশ্বে আতঙ্কের বদলে আনন্দ ছড়িয়ে দিতে চান পিজ্জা হোম টেকওয়ের এ বাবুর্চি, ‘ভাইরাসের মতো দেখতে এই বার্গার খেলে করোনাভাইরাস আর কারও কাছে ভীতিকর মনে হবে না। এই মহামারির মধ্যে এভাবেই আমি সবার মাঝে আনন্দ ছড়িয়ে দিতে চেয়েছি।’

ভাইরাসের কারণে বন্ধ হতে চলেছে ভিয়েতনামের দোকানপাট। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে যেখানে ১৬ জন করোনায় আক্রান্ত ছিলেন, সেই সংখ্যা এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪৮ জনে। অবশ্য এখনও মারা যাননি কেউ। এই সঙ্কটময় পরিস্থিতিতে দৈনিক ৫০টি করে করোনাবার্গার তৈরি করেন টুং। এই বিশেষ বার্গার খেতে নাতীর সঙ্গে এসেছিলেন ৬৬ বছর বয়সী ড্যাং ডিন কুই। এই বার্গার খেলে মানসিক শক্তি বেড়ে যায় বললেন তিনি, ‘করোনাভাইরাস খুব বিপজ্জনক। কিন্তু ভাইরাসের মতো দেখতে এই বার্গার যখন খাই, তখন মনে হয় বাহ আমরা জিতে গেছি। আপনি যদি একে হারাতে চান, তবে প্রথমেই এটা খেতে হবে।’



ঢাকা/ফাহিম   


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

মানবিক ওসি

২০২০-০৪-০৫ ১২:১৮:৫৯ এএম

মিরপুরে ৪০ পরিবার পেলেন ত্রাণ

২০২০-০৪-০৫ ১২:১১:৩১ এএম