পুঁজিবাজারে আস্থা বাড়াতে ভূমিকা রাখবেন বিএসইসি চেয়ারম্যান

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৮ ৯:৪৩:২০ পিএম
নুরুজ্জামান তানিম | রাইজিংবিডি.কম

করোনা মোকাবিলায় সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির কারণে পুঁজিবাজার বন্ধ রয়েছে। এরই মধ্যে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান পদ শূন্য হয়। গত ১৭ মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংকিং অ্যান্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলামকে বিএসইসির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেয় সরকার। নতুন এ চেয়ারম্যানকে ঘিরে পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্টদের মধ্যে নতুন আশার সঞ্চার হয়েছে।

আগামী দিনগুলোতে ধারাবাহিক মন্দাসহ করোনার প্রভাব কাটিয়ে পুঁজিবাজারের ওপর বিনিয়োগকারীদের আস্থা বাড়াতে বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যান গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখবেন, এমন প্রত্যাশা বিনিয়োগকারী ও বাজার সংশ্লিষ্টদের।

তাদের মতে, পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা আনতে দ্রুত সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে তা সমাধান করতে হবে। এজন্য বিএসইসির পাশাপাশি সরকারকে শক্তিশালী পদক্ষেপ নিতে হবে। এক্ষেত্রে বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যানের পেশাগত দক্ষতা, অভিজ্ঞতা ও গঠনমূলক কার্যক্রম পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতা আনতে ভূমিকা রাখবে।

এ বিষয়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী সানাউন হক বলেন, ‘অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত অনেক ডায়নামিক। আগের কর্মস্থলগুলোতে তিনি যথেষ্ট অবদান রেখে এসেছেন। আশা করছি, তিনি আমাদের পুঁজিবাজারকে অনেক কিছু দিতে পারবেন। সেদিক বিবেচনায় তিনি পুঁজিবাজারে চলমান স্থবিরতা কাটাতে সময়োপযোগগী সিদ্ধান্ত নিতে পাবেন। এতে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষে স্বার্থ রক্ষার্থে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। এ সংকটকালে তাকে বিএসইসির চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দিয়ে সরকার উপযুক্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমরা তার সাফল্য কামনা করছি।’

এদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মামুন-উর-রশিদ বলেছেন, ‘বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত বাংলাদেশের পুঁজিবাজারকে চাঙ্গা করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। বাজারের উন্নয়নে আমরা তার সাফল্য কামনা করি। বিএসইসির প্রতি আমাদের সম্পূর্ণ সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। তিনি অত্যন্ত যোগ্য ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ব্যক্তি। এক কথায়, তিনি ডায়নামিক। সাধারণ বিমা করপোরেশনেও তিনি গতিশীল পরিবর্তন এনেছেন। সে ধারাবাহিকতায় আমি আশা করি, তার নেতৃত্বে বিএসইসি নতুন প্রাণ ফিরে পাবে এবং তাদের কর্মকাণ্ডে গতিশীল পরিবর্তন আসবে। এতে বিনিয়োগকারীরা হারানো আস্থা ফিরে পাবে।’

বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) সভাপতি মো. ছায়েদুর রহমান বলেন, ‘বিএসইসির চেয়ারম্যান হিসেবে তিনি অত্যন্ত যোগ্য ব্যক্তি। বিগত কর্মস্থলগুলোতে তিনি নেতৃত্বের ছাপ রেখে এসেছেন। সে হিসেবে তিনি বিএসইসিতেও নেতৃত্বের বহিঃপ্রকাশ ঘটাবেন। আশা করি, উনার নেতৃত্বে সকল স্টেকহোল্ডাররা সন্তুষ্ট হবেন এবং আস্থা ফিরে পাবেন। একই সঙ্গে তার নেতৃত্বে বিএসইসি আরো উচ্চ মাত্রায় এগিয়ে যাবে।’

ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ডিবিএ) সভাপতি মো. শরিফ আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘পুঁজিবাজার বর্তমানে ক্রান্তিকাল পার করছে। আমদের প্রত্যাশা, বিএসইসির নতুন চেয়ারম্যানের শক্তিশালী ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে এ ক্রান্তিকাল সুসময়ে পরিণত হবে। তিনি পেশাগত ক্ষেত্রে অত্যন্ত দক্ষ, অভিজ্ঞ ও সফল একজন ব্যক্তিত্ব। দেশ-বিদেশে তার বিভিন্ন গঠনমূলক কার্যক্রম ও অবদানের জন্য তিনি বেশ প্রশংসা ও সুনাম অর্জন করেছেন। পুঁজিবাজারে তার আগমন, নেতৃত্ব ও অভিভাবকত্ব বিনিয়োগকারীসহ বাজার সংশ্লিষ্ট সকলকে আস্থা যোগাবে।’

বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘নতুন কমিশনের কাছে প্রত্যাশা, সাধারণ বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে আস্থাশীল ও বিনিয়োগবান্ধব পুঁজিবাজার গঠন করবেন। যেখানে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সঙ্গে সকল স্টেহোল্ডা কাজ করবেন। এতে পুঁজিবাজারে সুশাসন প্রতিষ্ঠা পাবে। এছাড়া, ইতোপূর্বে পুঁজিবাজারে কারসাজি ও লুণ্ঠনকারীদের আইনের আওতায় আনার ব্যবস্থা নেবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখার জন্য পুঁজিবাজারকে অন্তর্জাতিক মানের পর্যায়ে গড়ে তুলবেন।’

 

ঢাকা/এনটি/রফিক


     




আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

জেদ্দায় আবারও কারফিউ

২০২০-০৬-০৫ ৮:৪০:৩৬ পিএম