২১ দিনের বাজেট অধিবেশন, রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের অপেক্ষা

প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৮ ১০:০৯:০৪ পিএম
আসাদ আল মাহমুদ | রাইজিংবিডি.কম

২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন উপলক্ষে বেশকিছু পরিকল্পনা করেছে জাতীয় সংসদ সচিবালয়। বাজেট অধিবেশন ২১ দিন করার পরিকল্পনা রয়েছে। সম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১০ থেকে ৩০ জুন।

জাতীয় সংসদ সচিবালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বাজেট অধিবেশন ১০ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত করার খসড়া প্রস্তাব তৈরি করেছে জাতীয় সংসদ। এ খসড়ার ওপরে প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ নেওয়া হয়েছে। এখন রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের জন্য তা এ সপ্তাহেই পাঠানো হবে। রাষ্ট্রপতি অনুমোদন দিলেই ১০ জুন অধিবেশন শুরু হবে। অধিবেশন শেষ হওয়ার ব্যাপারে সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটি সিদ্ধান্ত নেবে। অধিবেশন শুরুর দিন সংসদ ভবনে এই কমিটির বৈঠক হবে। 

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে সংসদের কার্যপ্রণালী বিধি অনুযায়ী সংসদে উপস্থাপিত সম্পূরক বাজেট এবং আগামী অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনার বিধান রয়েছে। তাদের মতামতের ভিত্তিতে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সংশোধনী আনা হয়। কিন্তু এবার সংসদ সদস্যরা এ সুযোগ বেশি পাবেন না। করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় সংসদ অধিবেশনের সময়সীমাতে পরিবর্তন আসতে পারে। হতে পারে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা।

২০১৮ সালের বাজেট অধিবেশনে কার্যদিবস ছিল ২৫টি। ওই অধিবেশনে সম্পূরক বাজেটসহ মোট বাজেটের আলোচনায় ২২৩ জন এমপি অংশ নেন। তারা মোট ৫৫ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট আলোচনা করেন। বাজেট পাস ছাড়াও এ অধিবেশনে ১৪টি বিল পাস হয়।

২০১৯ সালের বাজেট অধিবেশন ২১ কার্যদিবস চলে। মোট ২৬৯ জন সংসদ সদস্য বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে ৫৫ ঘণ্টা ৩৬ মিনিট আলোচনা করেন। এর আগে এতজন এমপি এত সময় ধরে বাজেটের ওপর আলোচনা করার সুযোগ পাননি। কিন্তু এবার তা হচ্ছে না। এবার বিলও পাস হবে কম।

জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বলেছেন, ‘বাজেট অধিবেশন সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হবে। বাজেট অধিবেশন একটি গুরুত্বপূর্ণ অধিবেশন। করোনাভাইরাসের কারণে যতদূর সম্ভব দ্রুত শেষ করার চেষ্টা করা হবে।’ 

সূত্র আরো জানায়,  জাতীয় সংসদে আগামী ১১ জুন ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এর আগে বাজেট উপলক্ষে অনুষ্ঠেয় মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে মাত্র ১১ জন মন্ত্রীকে অংশ নিতে বলা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে ওই বৈঠকে সবাইকে ডাকা হয়নি।

২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটের মূল আকার দাঁড়াতে পারে সাড়ে ৫ লাখ কোটি টাকা। ২০২০-২১ অর্থবছরে বাজেটে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) জন্য ২ লাখ ৫ হাজার ১৪৫ কোটি টাকার খসড়া প্রস্তাব ইতোমধ্যেই অনুমোদন করেছে পরিকল্পনা কমিশন। যা চলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের এডিপির তুলনায় ৬ শতাংশ বেশি। উন্নয়ন বরাদ্দের মধ্যে সরকারের নিজস্ব অর্থ ১ লাখ ৩৪ হাজার ৬৪৩ কোটি টাকা এবং বিদেশি সাহায্যের পরিমাণ ধরা হয়েছে ৭০ হাজার ৫০২ কোটি টাকা।

আসন্ন বাজেটে করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতি পুনরায় দাঁড় করানোর কর্মপরিকল্পনার পাশাপাশি অধিক গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে মেগা প্রকল্পগুলোতে।

এ বিষয়ে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে এবারের বাজেট অধিবেশন হবে সীমিত পরিসরে। বাজেট অধিবেশন অনুমোদনের জন্য একটি প্রস্তাব রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হবে।’


ঢাকা/আসাদ/রফিক


     




আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

ঊরুর চোটে ভুগছেন মেসি

২০২০-০৬-০৬ ১:৫৫:৩২ পিএম

চঞ্চলের অপেক্ষা

২০২০-০৬-০৬ ১২:৫১:০২ পিএম