পুঁজিবাজারবান্ধব বাজেট প্রত্যাশা বিনিয়োগকারী-বাজার সংশ্লিষ্টদের

প্রকাশ: ২০২০-০৬-০২ ৭:৫৮:৫৯ পিএম
নুরুজ্জামান তানিম | রাইজিংবিডি.কম

২০২০-২০২১ অর্থবছরের জাতীয় বাজেট পেশ করা হবে আগামী ১১ জুন (বৃহস্পতিবার)।  এবারের বাজেটে পুঁজিবাজার উন্নয়নের জন্য ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্টরা বেশ কিছু প্রস্তাব জমা দিয়েছেন। করোনার প্রভাব কাটিয়ে উঠতে পুঁজিবাজারবান্ধব বাজেট চেয়ে সংশ্লিষ্ট মহল থেকে অর্থমন্ত্রীর কাছে সুপারিশও করা হয়েছে।  সুপারিশ করা সুযোগ-সুবিধা বাজেটে রাখা হলে পুঁজিবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন বিনিয়োগকারীসহ সংশ্লিষ্টরা।

এবার প্রস্তাবগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে অপ্রদর্শিত অর্থ (কালোটাকা) পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়া।  পাশাপাশি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর কর্পোরেট কর কমানোর বিষয়টিও প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এনবিআর সূত্রে জানা গেছে, আপাতত দুইভাবে কালোটাকা সাদা করার কথা চিন্তা-ভাবনা করছে এনবিআর।  একটি হলো- বিনা শর্তে টাকা সাদা করার সুযোগ, অপরটি- টাকা সাদা করার সুবিধা সম্প্রসারণ করা।

এদিকে পুঁজিবাজারে তারল্য প্রবাহ বৃদ্ধির জন্য অপ্রদর্শিত অর্থ ১:১ ভিত্তিতে বন্ড মার্কেট ও সেকেন্ডারি মার্কেটে বিনিয়োগ করা হবে।  বন্ডে বিনিয়োগ করা অর্থ ৩ বছরের জন্য ব্লক থাকবে।  ওই বন্ড এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে লেনদেনযোগ্য হবে।  ওই অর্থের ক্ষেত্রে সাড়ে ৭ শতাংশ কর প্রযোজ্য হবে বলে স্টেকহোল্ডাররা প্রস্তাব দিয়েছেন।

স্টেকহোল্ডারদের অন্যান্য দাবির মধ্যে- তালিকাভুক্ত কোম্পানির ক্ষেত্রে করপোরেট কর হার ২৫ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ নির্ধারণের সুপারিশ করা হয়েছে।  বর্তমানে ব্যাংক বিমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, টেলিকম, টোবাকো ইত্যাদি খাত ছাড়া তালিকাভুক্ত কোম্পানির কর হার ২৫ শতাংশ এবং অতালিকাভুক্ত কোম্পানির কর হার ৩৫ শতাংশ।  এছাড়া তালিকাভুক্ত কোম্পানির ক্ষেত্রে ভ্যাট হার ৫ শতাংশ কমানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পুঁজিবাজার বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক আবু আহমেদ রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘বাজেটে পুঁজিবাজারের জন্য অবশ্যই বিশেষ কিছু থাকা প্রয়োজন। তা না হলে পুঁজিবাজার ঘুরে দাঁড়াতে পারবে না।  বর্তমানে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর কর্পোরেট কর অনেক বেশি।  তালিকাভুক্ত কর্পোরেট কর ২৫ শতাংশ থেকে ২০ শতাংশে নামিয়ে আনতে হবে।  এতে করে ভালো কোম্পানিগুলো তালিকাভুক্তিতে আগ্রহী হবে। একইসঙ্গে এবারের বাজেটে অপ্রদর্শিত অর্থ পুঁজিবাজারে নিয়োগের সুযোগ দেওয়া যেতে পারে।’

এদিকে বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (বিএমবিএ) সভাপতি ছায়েদুর রহমান রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘করোনার প্রভাব কাটিয়ে উঠতে পুঁজিবাজারে কালোটাকা বিনিয়োগের সুযোগ দিতে হবে। এটা বাস্তবায়ন হলে পুঁজিবাজার গতিশীল হয়ে উঠবে। ’

এ বিষয়ে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজী আব্দুর রাজ্জাক রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘করোনাভাইরাসের ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার জন্য পুঁজিবাজারবান্ধব বাজেট বিনিয়োগকারীরা প্রত্যাশা করছে। বাজেটে ন্যূনতম পাঁচ বছরের জন্য নিঃস্বার্থভাবে কালোটাকা বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়ার জন্য সরকারকে বিশেষভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।’


ঢাকা/এনটি/জেডআর


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

গাজীপুরে করোনা রোগী বেড়ে ৩৮২৯

২০২০-০৭-১০ ৫:৩৬:৩৬ পিএম