কুনপেং ইকোসিস্টেম বেজ উন্মোচন করল হুয়াওয়ে

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৫ ৬:৩৮:৪৮ পিএম
মনিরুল হক ফিরোজ | রাইজিংবিডি.কম

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক : চীনের চেংদুতে সম্প্রতি আয়োজিত ‘এশিয়া-প্যাসিফিক ইনোভেশন ডে’ অনুষ্ঠানে হুয়াওয়ে ‘কুনপেং ইকোসিস্টেম বেস’ উন্মোচন এবং ৫জি প্রযুক্তির সর্বশেষ অগ্রগতি প্রদর্শন করেছে।

কুনপেং ইন্ডাস্ট্রি ইকোসিস্টেমকে এগিয়ে নিতে, হুয়াওয়ে আগামী পাঁচ বছরে তিন বিলিয়ন ইউয়ান বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা করছে। এর ফলে সহযোগী এবং ডেভেলপারগণ সহজেই অপারেটিং সিস্টেম, কম্পাইলার, অ্যাপ্লিকেশন পোর্টিং এবং অপটিমাইজেশন সংক্রান্ত তথ্য পাবে, যা তাদের নতুন কম্পিউটার যুগে এগিয়ে থাকতে সহায়তা করবে।

এশিয়া-প্যাসিফিক ইনোভেশন ডে অনুষ্ঠানে ৫জি, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা এবং কাটিং-এজ এর মতো উদ্ভাবনী প্রযুক্তির অ্যাপ্লিকেশনগুলো কীভাবে মানুষের জীবনে অগ্রগামী ভূমিকা পালন করতে পারে সে বিষয়ে আলোকপাত করা হয়। বিশেষজ্ঞ, উদ্ভাবক, বিশেষজ্ঞ এবং নীতিনির্ধারকগণ কীভাবে প্রযুক্তি ব্যবহার করে নতুন করে পরিবেশকে সাজানো পারবে সে বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

হুয়াওয়ের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট ও কর্পোরেট কমিউনিকেশনের সভাপতি ভিনসেন্ট পাং বলেন, ‘বিশ্বের জন্য হুয়াওয়ে ৩০ বছর ধরে কাজ করছে। আমরা প্রযুক্তি মাধ্যমে মানবজাতিকে সব কিছুর সঙ্গে এমনভাবে যুক্ত করতে চাই যেন তা মানবজাতির জন্য কল্যাণকর হয়। এছাড়াও আমাদের কাজের লক্ষ্যে হলো ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য প্রাকৃতিক পরিবেশ, বিপন্ন প্রজাতি এবং ঐতিহ্য রক্ষা করা।’

পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল প্রযুক্তির ফলে গিগাবিট গতির পাশাপাশি আরো শক্তিশালী সংযোগ স্থাপন সক্ষম হবে। টেলিকম লবি গ্রুপ জিএসএমএ এর তথ্যমতে, এশিয়া-প্যাসিফিক বিশ্বের বৃহত্তম ৫জি অঞ্চলে পরিণত হবে এবং ২০২৫ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী মোবাইল সংযোগের ১৫ শতাংশ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

৫জি সংযোগ স্থাপনের ফলে অর্থনৈতিক উন্নয়নের যে সম্ভাবনা অনুমান করা হয়েছে সেই মোতাবেক কাজ করে যাচ্ছে দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় দেশগুলো। কম্বোডিয়া, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন এবং থাইল্যান্ডসহ আসিয়ান এর সকল সদস্যরা পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক তৈরি করতে হুয়াওয়ের সঙ্গে সহযোগিতা করার ব্যাপারে জানিয়েছে।

উদাহরণস্বরূপ, থাইল্যান্ডে হুয়াওয়ে ইস্টার্ন ইকোনমিক করিডোর (ইসি) -এ ৫জি টেস্টবেড তৈরি করেছে, যা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে প্রথম। মালয়েশিয়ায় হুয়াওয়ে ৫জি প্রযুক্তিতে সহযোগিতা করার জন্য টেলিযোগাযোগ সংস্থা ম্যাক্সিস এবং ইডটকোর সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে। এছাড়া ভিয়েতনামে স্থানীয়ভাবে ৫জি প্রযুক্তির পরীক্ষামূলক কার্যক্রম সম্পন্ন করেছে। গত জুনে মাসে ফিলিপাইনের গ্লোব টেলিকম হুয়াওয়ের সরঞ্জামের দ্বারা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার প্রথম ৫জি ব্রডব্যান্ড সেবা চালু করেছে।

এখন পর্যন্ত হুয়াওয়ে ৫জি প্রযুক্তি স্থাপনের ক্ষেত্রে ৫০টি বাণিজ্যিক চুক্তি স্বাক্ষর করেছে এবং সারা বিশ্বের বাজারে ১৫০,০০০ এরও বেশি বেস স্টেশন স্থানান্তর করেছে।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯/ফিরোজ


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

শিশুদের জন্য উৎসব

২০২০-০১-২৪ ১:১৮:০৯ এএম

শ্রদ্ধা কি বিয়ে করছেন?

২০২০-০১-২৪ ১২:০৯:৩১ এএম

সংসদ সদস্যদের মুখোমুখি শিশুরা

২০২০-০১-২৩ ১০:০০:২৪ পিএম

বয়স যেখানে বাধা নয়

২০২০-০১-২৩ ৯:৫৬:৪২ পিএম