পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে গ্রহাণু

প্রকাশ: ২০২০-০৩-২৫ ২:২৭:০৯ পিএম
ইকবাল মাহমুদ ইকু | রাইজিংবিডি.কম

পৃথিবীর খুব কাছে রয়েছে একটি গ্রহাণু। আগামীকাল বৃহস্পতিবার যেকোনো সময় এটি ঘণ্টায় প্রায় ৫৩ হাজার মাইল বেগে পৃথিবীর খুব কাছ দিয়ে চলে যাবে। এমনটাই জানানো হয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার পক্ষ থেকে।

এই গ্রহাণুর নাম দেওয়া হয়েছে ২০১২এক্সএ১৩৩, যার আকার প্রায় ১২৮০ ফুট। পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসা এই গ্রহাণু আদৌ কি আমাদের জন্য ভয়ংকর কিছু বয়ে আনছে কি না, সেদিকে কড়া পর্যবেক্ষণ চালু রেখেছে নাসা। কোনোভাবে পৃথিবীর সঙ্গে সংঘর্ষ হলে গোটা মানবসভ্যতা কয়েক সেকেন্ডে ধ্বংস হয়ে যাবে।
নাসার তথ্যানুযায়ী, এই গ্রহাণুটি প্রায় ০.০৪৪৫৩ অ্যাস্ট্রোনোমিক্যাল ইউনিট দূরত্ব রেখে পৃথিবী পার হয়ে যাবে, আর সাধারণ হিসাব মতে এই দূরত্ব প্রায় ৪.১ মিলিয়ন মাইলের সমান। উল্লেখ্য যে, ১ অ্যাস্ট্রোনোমিক্যাল ইউনিট হলো সূর্য থেকে পৃথিবীর দূরত্ব। বিজ্ঞানীদের হিসাব অনুযায়ী, এই দূরত্ব পৃথিবীর বেশ কাছাকাছি হলেও সাধারণ হিসাব অনুযায়ী এই দূরত্ব অনেক অনেক বেশি।

নাসা ছাড়াও ইউরোপিয়ান মহাকাশ গবেষণা সংস্থাও (ইসা) এই গ্রহাণুটিকে কড়া পর্যবেক্ষণে রাখছেন। আর তাদের মতে, এই গ্রহাণু থেকে পৃথিবীর কোনো ধরনের ক্ষতিসাধন হওয়ার সম্ভাবনা বেশ কম। তাহলে এই গ্রহাণুকে সম্ভাব্য ক্ষতিকর বলা হচ্ছে কেন? এ সম্পর্কে নাসা বলছে, শেষ মুহূর্তে যদি কোনো কারণে এর গতিপথ পরিবর্তন হয়ে যায়, সেজন্যই সম্ভাব্য ক্ষতিকর বলা হচ্ছে, তবে এই সম্ভাবনা তেমন একটা নেই বললেই চলে।

তবে যেহেতু এটা মহাকাশের দূরত্ব হিসেবে পৃথিবীর বেশ কাছাকাছি অবস্থান দিয়েই পার হতে যাচ্ছে, তাই যথাসম্ভব সতর্ক থাকার ব্যাপারে নাসা পদক্ষেপ নিচ্ছে। অতীতে এমন আরো বেশ কিছু গ্রহাণু পৃথিবীর কোলঘেষে অতিক্রম করেছে এবং পৃথিবীর নিকটবর্তী বিভিন্ন বস্তুর সাথে সংঘর্ষ ঘটেছে। তাই ভবিষ্যতে এমন আরেকটি গ্রহাণু যে পৃথিবীর উপর আঘাত হানবে না, সেটা খুব ফলাও করে বলা যাচ্ছে না। এ কারণে নাসা সহ অন্যান্য মহাকাশ গবেষণা সংস্থাগুলো নিয়মিত এসব ধেয়ে আসা গ্রহাণুগুলোর দিকে কড়া নজর রেখে চলেছেন।

 

ঢাকা/ফিরোজ


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

দুঃসময়ে মানুষের পাশে শিপলু

২০২০-০৪-০৪ ৪:৪১:৩৮ পিএম

করোনা নিয়ে গাইলেন জামিল (ভিডিও)

২০২০-০৪-০৪ ৪:০৯:১০ পিএম

পুকুরের ডুবে শিশুর মৃত্যু

২০২০-০৪-০৪ ৪:০০:৫৩ পিএম