সুযোগের নিশ্চয়তায় নির্ভার শান্ত, হাসছে ব্যাট

প্রকাশ: ২০২০-০২-২৩ ৯:৩৯:০৮ পিএম
ক্রীড়া প্রতিবেদক | রাইজিংবিডি.কম

ব্যাকফুট পাঞ্চে টিরিপানোর বল বাউন্ডারিতে পাঠানোর পরের বলেই কাট করে পয়েন্ট দিয়ে আরেকটি চার। সিকান্দার রাজাকে পরপর দুই ওভারে কভার ড্রাইভে চার। পায়ের ওপরের বল মিড উইকেট ও মিড অনের গ্যাপ দিয়ে বাউন্ডারি।

নাজমুল হোসেন শান্তর একেকটি শট চোখ ধাঁধিয়ে দিচ্ছিল। মুগ্ধ হয়ে দেখেছে তামিম ইকবালও। ২২ গজে দারুণ ধারাবাহিকতায় শান্তর ব্যাট থেকে আসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের প্রথম হাফসেঞ্চুরি। চাইলেই মাইলফলক ছোঁয়া ইনিংসটি বড় করতে পারতেন। কিন্তু ছোট্ট ভুলে বড় খেসারত দিয়েছেন।

৭১ রানে সাজঘরে ফেরেন শান্ত। কিন্তু তার ব্যাটে শক্ত অবস্থানে আছে দল। দিন শেষে শান্ত দলের প্রতিনিধি হয়ে এসেছিলেন সংবাদ সম্মেলনে। সেখানে তার কথা শুনেছে রাইজিংবিডি,

ইনিংস বড় করার সুযোগ ছিল?

নাজমুল হোসেন শান্ত: অবশ্যই সুযোগ ছিল। যেহেতু উইকেট ভালো ছিল। এরপরেও আমি মনে করি, যতটুকু ব্যাটিং করেছি আউটটা ছাড়া বাকি সবকিছু ভালো হয়েছে। তবে যেভাবে খেলছিলাম, শুরুটা যেভাবে হয়েছিল তাতে ইনিংসটা বড় করা উচিত ছিল।

ব্যাটিংয়ে নামার সময় পরিকল্পনা কি ছিল? শুরু থেকেই আগ্রাসন?

নাজমুল হোসেন শান্ত: অবশ্যই একটা বৈঠক হয়েছে আমাদের। ব্যাটিং নিয়ে একটা নির্দিষ্ট পরিকল্পনা আছে আমাদের। আমরা প্রথমে চিন্তা করেছিলাম উইকেটটা কেমন আচরণ করছে সেই অনুযায়ী খেলব। পরবর্তীতে দেখা গেছে উইকেটটা ভালো। সেই অনুযায়ী ব্যাটিং করেছি।

নিজের ব্যাটিংয়ের কোথায় পরিবর্তন দেখছেন?

নাজমুল হোসেন শান্ত: সত্যি কথা বলতে এর আগে যখন খেলেছি তখন একটা ভয় কাজ করতো। মনে হতো যে খারাপ খেললে বাদ পড়তে পারি বা এমন কিছু একটা। মানে আগে যখন ২০১৭ সালে অভিষেক হয়েছে তখন ছিল, তবে এখন আমি মানসিকভাবে তেমন কিছু চিন্তা করছি না।

ভালো খেলি কিংবা খারাপ খেলি সেটা আসলে আমার পার্ট। দলে থাকবো কি থাকবো না সেটা নিয়ে ভাবছি না। তবে চেষ্টা করছি নিয়মিত ভালো খেলার। আর একটা ইতিবাচক দিক হলো আমাদের কোচিং স্টাফ যারা আছেন তারা অনেক বেশি আত্মবিশ্বাস দিচ্ছে এবং এগুলো নিয়ে চিন্তা করতে বারণ করছে। তারা বার বার বলছে তুমি অনেক সুযোগ পাবে, এখন শুধু খেলায় ফোকাস করো।

লম্বা সময় ধরে আপনি প্রক্রিয়ায় ছিলেন। এখন ওয়ানডে দলে সুযোগ হল…

নাজমুল হোসেন শান্ত: লম্বা সময় ধরে আমি পরিকল্পনায় আছি, এটা একটা ইতিবাচক দিক। সেটা প্রত্যেক ক্রিকেটারেরই থাকা উচিত। আমি মনে করি যখন জাতীয় দল থেকে বাদ পড়লাম এরপরও আমি হাই পারফরম্যান্স, 'এ' দলে ছিলাম। এটা আমার জন্য একটা ইতিবাচক দিক যে, নির্বাচকরা আমাকে ঐ জায়গাতে সুযোগ দিয়েছে। প্রত্যেক ক্রিকেটারেরই এমন সুযোগ পাওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ বলে আমি মনে করি। আমি এখন অনুভব করছি, মাঠে যখন নামি তখন আগের চেয়ে বেশি চনমনে থাকি। এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। আর ওয়ানডে দলের কথা আপনি যেটা বললেন, এখনই শুনলাম। আলহামদুলিল্লাহ যদি সেখানেও সুযোগ পাই ম্যাচ খেলার তাহলে ভালো করার চেষ্টা করবো।

বিসিএলের শেষ ম্যাচে ২৫৩ করছিলেন। সেটা কতোটা আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছে?

নাজমুল হোসেন শান্ত: বিসিএলের ঐ ইনিংসটা হওয়াতে আমি আজ শুরু থেকেই ব্যাটিংয়ে আত্মবিশ্বাসী ছিলাম। সেখানে বড় ইনিংস খেলার কারণে আজকে আমার জন্য কিছুটা হলেও সহজ হয়েছে।

তৃতীয় দিনের পরিকল্পনা কি হতে পারে?

নাজমুল হোসেন শান্ত:  আসলে এটা বলা কঠিন কারণ কাল আবার নতুন করে শুরু করতে হবে। এখন মুমিনুল ভাই এবং মুশফিক ভাই অনেক ভালো ব্যাটিং করছে। আমার মনে হয় এনারা দুইজন যদি ধারাবাহিক হতে পারেন, মানে যত লম্বা করা যায়…আমাদের জন্য ততো উপকার হবে।

 

ঢাকা/ইয়াসিন/কামরুল


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

রেললাইনে জার্মান মন্ত্রীর লাশ

২০২০-০৩-২৯ ৯:৫৯:১১ পিএম