আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্তদের খাবার পানির ব্যবস্থা করলেন টাইগাররা

প্রকাশ: ২০২০-০৬-০৬ ১:১০:০২ পিএম
ক্রীড়া ডেস্ক | রাইজিংবিডি.কম

করোনাভাইরাসের ফলে সৃষ্ট বিপর্যয়ের সময় দেশের অসহায়, গরীব ও দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। দলের সব ক্রিকেটাররা নিজেদের বেতনের অর্ধাংশ দিয়ে, কিংবা ব্যক্তিগত উদ্যোগে সাধ্যের সর্বোচ্চ দিয়ে জাতীয় এই বিপর্যয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

গত মাসের ২০ মে করোনা বিপর্যয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়ে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান। প্রলয়ঙ্কারী এই ঘূর্ণিঝড় দেশের দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ, বিশেষ করে সাতক্ষীরা ও এর আশেপাশে তাণ্ডব চালিয়েছে ভয়ানকভাবে। এতে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয় সাতক্ষীরার শ্যামনগরের মানুষের। অনেকে হন গৃহহীন। আর পুরো অঞ্চল জুড়ে দেখা দেয় খাবার পানির সঙ্কট। আর এই সমস্যা দূর করতে সামাজিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান ফুটস্টেপসের সঙ্গে মিলে অসহায় মানুষের ঘরবাড়ি নির্মাণ করে দেয়ার উদ্যোগ আগেই নিয়েছিলেন তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিমরা। এবার খাবার পানিও সরবারাহ করছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা।

ঐসব অঞ্চলের স্বেচ্ছাসেবীমূলক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দৈনিক ১ হাজার মানুষকে খাবার পানি দিয়ে যাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল নিজের সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তামিম নিজের অ্যাকাউন্টে এক বিবৃতিতে লিখেন, ‘করোনাভাইরাসের এই দুর্যোগের মধ্যেই কিছুদিন আগে বাংলাদেশে আঘাত করেছিল ঘূর্ণিঝড় আম্পান (আম্ফান)। দেশের দক্ষিণাঞ্চলে অনেক ক্ষতি হয়েছে এই ঝড়ে। আমরা খবর পেয়েছিলাম, সাতক্ষীরার শ্যামনগরে অনেক মানুষ খাবার পানির তীব্র সঙ্কটে ভুগছে। এরপর জাতীয় ক্রিকেট দলের পক্ষ থেকে ওই অঞ্চলের মানুষের জন্য সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রতিদিন ১ হাজার মানুষকে খাবার পানি সরবরাহ করা হচ্ছে এখন। এই উদ্যোগে আমরা পাশে পেয়েছি স্থানীয় কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ও দারুণ উদ্যমী কিছু মানুষকে। তারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে চলেছেন এবং অসহায় মানুষের দুয়ারে খাবার পানি পৌঁছে দিচ্ছেন। তাদের প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতার শেষ নেই। শ্যামনগরের মানুষের দুর্দশার কথা বলার পর আমাদের দলের সবাই খুব দ্রুত স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে এসেছে। সেজন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’


ঢাকা/কামরুল


     



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

টিভিতে আজকের খেলা

২০২০-০৭-০৭ ৮:৩৬:৩৪ এএম

আমার দেখা টোকিও (পর্ব-৬)

২০২০-০৭-০৭ ৭:৫৬:৪৫ এএম