‘আইন আছে বলেই তো বাউন্ডারিতে ম্যাচের ফল নির্ধারণ হলো’

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১৫ ৮:৩৬:২৩ এএম
ইয়াসিন | রাইজিংবিডি.কম

লন্ডন থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক: মার্টিন গাপটিল কাঁদছিলেন। জিমি নিশাম এগিয়ে এসেছিলেন সান্তনা দিতে।  ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা দূরে রইলেন না।  মাঠের ক্রিকেটে প্রতিপক্ষ হতে পারে, কিন্তু বাইরে তো সবাই এক।  দিন শেষে সবাই স্পোর্টসম্যান।  জস বাটলাররা তাই বুক চাপড়ে গাপটিলকে দিচ্ছিলেন প্রেরণা। 

কেন উইলিয়ামসন দাঁড়িয়ে ছিলেন লর্ডসের ব্যালকনিতে।  বিশ্বাস করতে পারছিলেন না অনেক কিছু।  মূল ম্যাচ টাই হওয়ার পর সুপার ওভারও টাই।  ম্যাচের ফল নির্ধারিত হলো বাউন্ডারি সংখ্যায়। যেখানে বাটলার-স্টোকসরা বাউন্ডারি মেরেছেন ২৬টি, উইলিয়ামসন-নিশামদের ১৭টি।  দুবার নাটকীয় টাইয়ের পর এমন ‘উদ্ভট’ পদ্ধতিতে বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচের সমাপ্তি হলো, মানতে পারছিলেন না অনেকেই।  ম্যাচ শেষে কেন উইলিয়ামসনকে এ নিয়ে মুখ খুলতে হয়।  পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয়ে কথাও বলেন কিউই অধিনায়ক। লর্ডসের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে তার কথা শুনেছে রাইজিংবিডি,

কেন, ঠিক এ মুহূর্তে আপনার মনের ভেতরে কি কাজ করছে?

কেন উইলিয়ামসন: হ্যাঁ, খারাপ লাগছে।  আপনারা জানেন, এই সুযোগটি তৈরি করতে আমাদের অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে। এখানে এসে ভালো ক্রিকেট খেলতে হয়েছে।  বিশ্বকাপ ফাইনালে আমাদের যতটুকু করার সাধ্য ছিল আমরা ততোটুকু করতে পেরেছি।  তারপরও আপনি যখন লাইন ক্রস করতে পারেননি তাও অল্পের জন্য তখন একটু খারাপ লাগবেই। 

তারপরও বলছি, ইংল্যান্ডের থেকে ফিরিয়ে নেওয়ার মতো কিছু নেই।  শুধু এই ম্যাচেই নয়, তারা পুরো বিশ্বকাপে যে ক্রিকেট খেলেছে তাদেরকে সেই কৃতিত্ব দিতে হবে।  তারা শিরোপার যোগ্য দাবিদার।

যখন ২৪১ রান করেছেন আপনাদের বোলিংয়ের টার্গেট কি ছিল? দেখা যাচ্ছে আপনারা পুরো টুর্নামেন্টে উইকেট সম্পর্কে ভালো ধারণা পেয়েছেন?

কেন উইলিয়ামসন: আমরা কিছু রান কম করেছি। ২৫০-২৬০ করার ইচ্ছে ছিল আমাদের।  আমরা জানতাম এখানে ব্যাটিং করা ততটা কঠিন নয় এবং প্রথম ১০ ওভারে আমাদের বোলাররা মুভমেন্ট পায়।  আমরা জানতাম আমরা যদি শুরুতে উইকেট তুলে নিতে পারি উইকেটের সাহায্য নিয়ে বোলাররা ভালো পজিশনে নিয়ে যেতে পারবে আমাদেরকে।

কেন, বাউন্ডারিতে ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারণ হল। আপনার কি মনে হয় বিশ্বকাপের ফাইনালে এভাবে ম্যাচের ফল নির্ধারণ করা ঠিক হল?

কেন উইলিয়ামসন: আমার ধারণা আপনি কখনোই চিন্তা করেননি যে আমাকে এ প্রশ্ন করবেন কিংবা আমাকে এই প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।  হ্যাঁ এখনও অনুভূতি গুলো তরতাজা এবং দুইবারেও যখন কোনো কিছুতেই দুই দলকে আলাদা করা যাচ্ছিল না আপনাকে কিছু একটা করতেই হবে।  আসলে দুই দল জয়ের জন্য শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিল।  কোনো সুযোগ হাতছাড়া করতে চাচ্ছিল না কেউই।  এবারই তো প্রথম এমনটা হলো।  আইন আছে বলেই তো প্রথমবারের মতো বাউন্ডারিতে ম্যাচের ফল নির্ধারণ হলো’

 

ম্যাচের আগে কি ঘুণাক্ষরে একবারও ভেবেছিলেন সুপার ওভার ব্যবহার হতে পারে?

কেন উইলিয়ামসন: হ্যাঁ, আমরা সুপার ওভার অনুশীলন করেনি ম্যাচের আগে (হাসি)। বর্তমান সময়ে আপনাকে মাঠের বাইরে বল মারতেই হবে।  আমরা সেই চেষ্টা করেছি কিন্তু দিনটি আজ আমাদের ছিল না। 

মার্টিন গাপটিল ফর্মে নেই।  তবুও তাকে কেন সুপার ওভারে নামালেন?

কেন উইলিয়ামসন: ও দ্রুত দৌড়াতে পারে।  ওর কাজটা এটাই ছিল।  হয়তো শেষটায় কিছুটা শর্ট ছিল।  দূর্ভাগ্যবশত শেষটায় যেভাবে চাওয়া হচ্ছিল সেভাবে হয়নি।

আজ যেভাবে ফাইনাল হলো।  যেই উত্তেজনা ছড়াল সেটা ক্রিকেট বিশ্ব কিভাবে গ্রহণ করবে বলে মনে হচ্ছে?

কেন উইলিয়ামসন: প্রত্যেকেই এ ম্যাচটির কথা মনে রাখবে।  ইংরেজরা তো আমাদের থেকে বেশি পছন্দ করবে? তাই না! অসাধারণ একটি ম্যাচ আমরা খেলেছি। 

বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ।  আপনারা হেরে গেছেন।  ঠিক কোন বিষয়টিতে নিজেদের ওপর রাগ হচ্ছেন?

কেন উইলিয়ামসন: হাসবো না কাঁদব বুঝতে পারছি না! আসলে রাগ হওয়ার কোনো কারণ দেখছি না।  অনেক কিছু নিয়েই হতাশ হতে পারি।  হয়তো ছেলেরাও একই কথা বলছে।  কিছু জিনিস ছিল যা আমাদের কট্রোলে ছিল না।  কিন্তু যেভাবে শেষ মুহূর্ত লড়াই হয়েছে সেটা অবিশ্বাস্য। আমরা জয়ের পরিস্থিতিতে ছিলাম।  হয়নি, কিন্তু হতেও পারত।

আপনার কি মনে হচ্ছে না বাউন্ডারির নিয়মের কাছেই আপনারা হেরে গেছেন?

কেন উইলিয়ামসন: বাউন্ডারির নিয়মটি কি নেই? এটাতে আমাদের কিছু করার নেই।  আপনি রান করলেন কিন্তু এক্সট্রা বাউন্ডারি মারলেন না, তাতে কি করার থাকতে পারে।  এক ম্যাচে দুটা টাইয়ের পর আপনার কি করার থাকতে পারে! আসলে বাউন্ডারি কিভাবে গোনা হয়েছে তা বলতে পারছি না, হয়তো আমার ওদের থেকে কয়েকটা ব্যবধানে পিছিয়ে আছি।  আসলেও কঠিন সিদ্ধান্ত …. (হাসি)।

 

রাইজিংবিডি/লন্ডন/১৫ জুলাই ২০১৯/ইয়াসিন/শামীম


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

৫৮ পদক নিয়ে পঞ্চম স্থানে বাংলাদেশ

২০১৯-১২-০৬ ১২:৫২:২৮ এএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চোলাই মদসহ আটক ৮

২০১৯-১২-০৬ ১২:২৭:২৪ এএম

নাটোরে টমেটোর ঝুড়িতে ফেন্সিডিল

২০১৯-১২-০৬ ১২:০৬:২৪ এএম

প্রেমের কারণে বন্ধুকে খুন!

২০১৯-১২-০৫ ১০:৩১:২৭ পিএম

তুই কি আমার হবি রে?

২০১৯-১২-০৫ ১০:০৯:১৭ পিএম