গোলাপি বলে টেস্ট, রোমাঞ্চের সঙ্গে উদ্বেগও

প্রকাশ: ২০১৯-১১-১৭ ৯:০৫:২৮ এএম
ইন্দোর থেকে ক্রীড়া প্রতিবেদক | রাইজিংবিডি.কম

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের যাত্রা শুরু হয়েছে ইনিংস পরাজয় দিয়ে। নতুন যাত্রায় বাংলাদেশের পরের পরীক্ষা গোলাপি বলে টেস্ট।

কলকাতার ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশ ও ভারত প্রথমবারের মতো খেলবে দিবারাত্রির টেস্ট। এমন মাহেন্দ্রক্ষণে যে কারোর ওপরই রোমাঞ্চের ঢেউ আছড়ে পড়ার কথা। বাংলাদেশ দলের চোখেমুখে মিশে আছে রোমাঞ্চ, সঙ্গে মিশে আছে উদ্বেগও।

ভারতে পা রেখেই টেস্ট দলের অধিনায়ক মুমিনুল হকের জানতে চাওয়া, ‘জানেন নাকি গোলাপি বলের সিম কোন রঙের? অন্ধকারে কালো রঙের হলে তো সমস্যা হতে পারে।’ টেস্ট অধিনায়কের এমন জিজ্ঞাসায় বাকিদের কী অবস্থা, তা একটু অনুমান করা যাচ্ছিল টি-টোয়েন্টি সিরিজ চলাকালীন।

অবশ্য বিসিবি সেই ভয় থেকে তাদেরকে উদ্ধার করেছে। দেশে থাকতেই বাংলাদেশ এসজি কোম্পানির থেকে তিন ডজন গোলাপি বল কিনেছিল। ইন্দোরে পৌঁছে সেই বলগুলো হাতে ওঠে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। ইন্দোরেই টুকটাক গোলাপি বলে অনুশীলন করেছে প্রথম টেস্ট না খেলা ক্রিকেটাররা। তবে বাংলাদেশ দলের উদ্বেগ কাটছে না। বিশেষ করে প্রথম টেস্ট বাজেভাবে হারের পর গোলাপি বলে খেলা কেমন হতে পারে, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে নতুন উদ্বেগ।

কোচ রাসেল ডমিঙ্গো সিরিজ শুরুর আগে নিজের উদ্বেগ প্রকাশ করে জানিয়েছিলেন, একটি প্রস্তুতি ম্যাচ হলে ছেলেরা দিবারাত্রির টেস্ট সম্পর্কে ভালো ধারণা পেত। ম্যাচ অনুশীলন ও নেট অনুশীলনের যে বিস্তর পার্থক্য, তা তিনি বুঝিয়েছিলেন। আঁটসাঁট সূচিতে বাংলাদেশ পায়নি কোনো প্রস্তুতি ম্যাচ।

এ নিয়ে কোচ কথা বলতে গিয়ে বলেছেন, ‘ভালো হতো গোলালি বলে যদি দুই দিনের একটা প্রস্তুতি ম্যাচ খেলা যেত। দক্ষিণ আফ্রিকা দলের সঙ্গে আমার সময়ে অ্যাডিলেডে টেস্টের আগে গোলাপি বলে একটা দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিলাম আমরা। কিছু খেলোয়াড়ের মধ্যে বেশ উদ্বেগ আছে।’

দোর টেস্ট আগেভাগে শেষ হওয়ায় বাংলাদেশ বাড়তি দুদিন অনুশীলনের সুযোগ পেয়েছে। আজ বিকেলেই ঐচ্ছিক অনুশীলন আছে দলের। পরদিন গোটা দলের অনুশীলন। ১৯ নভেম্বর দল যাবে কলকাতায়। পরের দুদিন অনুশীলন করে ২২ নভেম্বর ইডেনে দিবারাত্রির টেস্টে অভিষেক হবে দুই দলের।

 

 

সব মিলিয়ে তিন সেশন অনুশীলনের সুযোগ পাবে বাংলাদেশ। এ সময়টাকে পর্যাপ্ত মানতে নারাজ ডমিঙ্গো, ‘মাত্র দুদিনের অনুশীলন। এরপর ম্যাচ। একটা অনুশীলন ম্যাচ থাকলে ভালো হতো।’

গোলাপি বলে এবারই প্রথম খেলবেন বাংলাদেশের টেস্ট স্কোয়াডের ক্রিকেটাররা। ঘরোয়া ক্রিকেটে একবারই গোলাপি বলে খেলা হয়েছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের প্রথম আসরের ফাইনাল ম্যাচে মিরপুরে খেলেছিল ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন ও প্রাইম ব্যাংক সাউথ জোন। ওই ম্যাচে খেলা ২২ ক্রিকেটারের কেউ টেস্ট দলে নেই। ফলে উদ্বেগ কাটছেই না।

আবার বাড়তি একটি ব্যাপার ভয় দেখাচ্ছে। এখন পর্যন্ত দিবারাত্রির যে টেস্ট ম্যাচগুলো হয়েছে, সবগুলোতে কুকাবুরা বল ব্যবহার হয়েছে। ইডেনে প্রথমবারের মতো ব্যবহৃত হবে ভারতীয় কোম্পানি এসজির গোলাপি বল। ফলে বল কেমন আচরণ করবে, তা নিয়ে একটি শঙ্কা থাকছেই।

এর আগে ভারত একাধিকবার গোলাপি বলে খেলার অফার ফিরিয়েছে।  বিসিসিআইয়ের দায়িত্ব গ্রহণের পর সৌরভ গাঙ্গুলি গোলাপি বলে টেস্ট আয়োজনের প্রস্তাব দেন। তাতে রাজী হয় বিসিবিও। বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান বলেছিলেন, ‘ওরাও (ভারত) এখনো দিবারাত্রির টেস্ট খেলেনি। আমরা খেলিনি। দুই দলের সম্ভাবনা ফিফটি-ফিফটি।’ কিন্তু ভারত যেভাবে ইন্দোরে বাংলাদেশকে নাকানিচুবানি খাইয়েছে, তাতে ভারতের আত্মবিশ্বাস তো দ্বিগুণ বেড়েছে।



ইন্দোর/ইয়াসিন/পরাগ


   



আজকের সর্বশেষ সংবাদ সমূহঃ

মিস ওয়ার্ল্ড হলেন মিস জ্যামাইকা

২০১৯-১২-১৫ ১২:২২:৩৬ এএম

সান্তোকির নো বল আইসিসি ‘দেখছে’

২০১৯-১২-১৪ ১০:৫২:৫৮ পিএম

মাশরাফি-হাসান-এনামুলে ঢাকার জয়

২০১৯-১২-১৪ ১০:৪৯:১৬ পিএম

‘পরিচালকের টয়লেটও কি এমন নোংরা’

২০১৯-১২-১৪ ১০:০৭:৫৪ পিএম

পুলিশ ও সাইফের অঘোষিত ফাইনাল

২০১৯-১২-১৪ ৯:১৪:৫৫ পিএম

সামনে শুধুই অন্ধকার

২০১৯-১২-১৪ ৯:০৯:০৯ পিএম